মহামারী নয়, করোনাকে কেন অতিমারী ঘোষণা করল হু

দেশ জুড়ে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা৷ জনজীবন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে শুরু করায় দ্রুত ছড়াচ্ছে সংক্রমণ৷ এই পরিস্থিতিতে সামান্য জ্বর, সর্দি, কাশি হলেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কায় ভুগছেন অনেকে৷

করোনা দেশের গণ্ডী পার করে ফেলেছে৷ শুধু আন্টার্কটিকা বাদে সব মহাদেশের মানুষই করোনায় আক্রান্ত৷ মোট ১১৪টি দেশে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে ৷

  • Share this:

    #কলকাতাঃ গোটা পৃথিবীর কাছেই এখন ত্রাসে্র নাম করোনা৷ এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫০০০ জনের৷ আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৩৪ হাজার ৮১৮ জন৷ এই অবস্থাায় হু করোনাকে অতিমারি বা প্যান্ডেমিক ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু৷ সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল ট্রেডস আধানম ঘেব্রিয়েসাস সম্প্রতি পরামর্শ দিয়েছেন করোনা মোকাবিলায় কী করণীয়৷ এই অবস্থায় অনেকেই জানতে চাইছেন, করোনা কেন অতিমারী?

    ‘হু’ এর ব্যখ্যা অনুযায়ী, এপিডেমিক বা মহামারি হল এক একটি দেশে ছড়িয়ে পড়ে৷ স্বাভাবিক সংক্রণের থেকে অনেক বেশি দ্রুত আকারে এই ধরনের সংক্রমণ৷ উদাহরণ স্বরূপ বলা যায়, জিকা ভাইরাস, চিকুনগুনিয়া বা ডেঙ্গু ভারতে অতীতে মহামারীর আকার ধারণ করেছিল৷ প্রসঙ্গত সংক্রমণ শুরু হলে তাকে মারী বা আউটব্রেক বলা হয়৷ আর একটি সংক্রমণ যদি একটি বিশেষ অঞ্চলে থেকেই যায় তবে তাঁকে বলে এনডেমিক৷

    এক্ষেত্রে করোনা দেশের গণ্ডী পার করে ফেলেছে৷ শুধু আন্টার্কটিকা বাদে সব মহাদেশের মানুষই করোনায় আক্রান্ত৷ মোট ১১৪টি দেশে আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে ৷মহামারীর থেকেও অনেকগুণ ভয়াবহ, তাই এই মারীকে অতিমারী বলা হচ্ছে৷ ইতিমধ্যেই ইওরোপের দেশগুলি থেকে আমেরিকায় যাওয়ার ব্যাপারে এক মাসের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে৷

    Published by:Arka Deb
    First published: