• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • " মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির কোনো সারবত্তা নেই", ট্যুইটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাল্টা উত্তর রাজ্যপালের

" মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির কোনো সারবত্তা নেই", ট্যুইটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাল্টা উত্তর রাজ্যপালের

ভিডিও কনফারেন্সে ICMR’এর উন্নত প্রযুক্তিসম্পন্ন ল্যাবরেটরি উদ্বোধনে নাম না করে এই ভাষাতেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

ভিডিও কনফারেন্সে ICMR’এর উন্নত প্রযুক্তিসম্পন্ন ল্যাবরেটরি উদ্বোধনে নাম না করে এই ভাষাতেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

কড়া ভাষায় আবারও মুখ্যমন্ত্রী শনিবার চিঠি দিয়েছেন রাজ্যপালকে। তার উত্তরে অবশ্য রাজ্যপাল পরপর তিনটি ট্যুইট করে মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির উত্তর দিয়েছেন।

  • Share this:

#কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রীর চিঠি পাঠানোর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তার প্রাথমিক উত্তর দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কড়া ভাষায় আবারও মুখ্যমন্ত্রী শনিবার চিঠি দিয়েছেন রাজ্যপালকে। তার উত্তরে অবশ্য রাজ্যপাল পরপর তিনটি ট্যুইট করে মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির উত্তর দিয়েছেন।

ট্যুইট  করে তিনি বলেছেন " মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির সারবত্তা নেই। ওনার পাঠানো চিঠির বক্তব্য যুক্তি তথ্য নেই। এটা সংঘাতের সময় নয়। হাত মিলিয়ে কাজ করতে হবে। এখন মাথায় ছাদ ভাঙার পরিস্থিতি। আশা করি মুখ্যমন্ত্রী সেটা বুঝবেন।" রাজভবন সূত্রের খবর শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ  ট্যুইট করে মুখ্যমন্ত্রীর চিঠির প্রতিক্রিয়া দিলেও মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্যপাল পাল্টা চিঠি দিতে চলেছেন।

প্রসঙ্গত এক সপ্তাহ আগেই মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যপালের মধ্যে কার্যত পত্র যুদ্ধ হয়। এক সপ্তাহ আগে মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো চিঠির উত্তরে রাজ্যপাল তারপর দুটি চিঠি পাঠিয়েছিলেন। রাজভবন সূত্রে খবর রবিবারের মধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো চিঠির উত্তর রাজভবনের তরফে চলে যাবে।

অন্যদিকে, শনিবার রাজ্যের করোনাভাইরাস মোকাবিলা নিয়ে ফের রাজ্য কে আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। শনিবার দুপুর নাগাদ পরপর দুটি  ট্যুইট করেন রাজ্যপাল। মূলত রাজ্যের তরফে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে ১ মে কেন হেল্থ বুলেটিন দেওয়া হল না  তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন রাজ্যপাল। শুধু তাই নয় কেন্দ্র ও রাজ্যের তালিকা কেন এত অসামঞ্জস্যতা নিয়ে সরব হন রাজ্যপাল।

এদিন তিনি ট্যুইট করে বলেন "  COVID-19 সব তথ্য স্বচ্ছতার ভাবে প্রকাশ করুন মুখ্যমন্ত্রী। গত ৩০শে এপ্রিল এর স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন জানাচ্ছে রাজ্যে করোনা না আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭২। কিন্তু ১ মে কোন হেলথ বুলেটিন নেই। কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্য বলছে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৯৩১। ৫৭২ আর ৯৩১ এর মধ্যে অনেকটাই ফারাক রয়েছে। এতটা খারাপ কেন থাকবে যখন সবাই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন।"

গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় রাজ্যে করোনাভাইরাস মোকাবিলা নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। যদিও শুক্রবার রাতে ট্যুইট করে মুখ্যমন্ত্রীকে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন রাজ্যপাল। শুক্রবার রাতে ট্যুইট করে তিনি বলেন " যেকোনো সময় আলোচনায় বসুন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যবাসী স্বার্থে আলোচনায় বসুক উনি।" বারবারই করোনাভাইরাস মোকাবিলা নিয়ে রাজ্য রাজ্যপাল সংঘাত ক্রমশই জোরালো হচ্ছে। যদিও কয়েক সপ্তাহ ধরেই কখনও রাজ্যে লক ডাউনের বিধি না মানা, কখনো ১০০% সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স কার্যকরী না হওয়া, আবার কখনো কেন্দ্রীয় বাহিনীকে রাজ্যে সহযোগিতা না করা। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে এই বিষয়গুলো নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল। এর পাশাপাশি রেশন দুর্নীতি নিয়ম রাজ্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল।

যদিও গত বারের পর এবারেও মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো চিঠির প্রতিক্রিয়া দিতে দেরি করেননি রাজ্যপাল। মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো চিঠিতে কোন সারবত্তা বা কোন যুক্তি তথ্য নেই বলেও কার্যত  ট্যুইট করে তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন রাজ্যপাল। রাজভবন সূত্রে খবর, রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীকে খুব শীঘ্রই তার পাঠানো চিঠির উত্তর দিতে চলেছেন।

Somraj Bandopadhyay

Published by:Elina Datta
First published: