corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে সীমান্তে হয়রানির দিন শেষ, রাজ্যে প্রবেশ-প্রস্থানে মুশকিল আসান ENTRY-EXIT পাস

লকডাউনে সীমান্তে হয়রানির দিন শেষ, রাজ্যে প্রবেশ-প্রস্থানে মুশকিল আসান ENTRY-EXIT পাস
ফাইল ছবি

https://www.wb.gov.in -এই সাইটে গিয়ে 'এগিয়ে বাংলা'য় মিলবে ENTRY এবং EXIT পাসের তিনটি আলাদা লিঙ্ক।

  • Share this:

#কলকাতাঃ ভিন রাজ্য থেকে বিশেষ ট্রেন এবং বাসে করে আটকে পড়া এ রাজ্যের  বাসিন্দাদের ফেরানোর উদ্যোগ নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এবার সরকারি ওয়েবসাইটে গিয়ে 'এগিয়ে বাংলা'  পোর্টাল থেকে বিশেষ পাসের ব্যবস্থা করল রাজ্য সরকার।

https://www.wb.gov.in -এই সাইটে গিয়ে 'এগিয়ে বাংলা'য় মিলবে ENTRY এবং EXIT পাসের তিনটি আলাদা লিঙ্ক। পাশাপাশি বিহার, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড, সিকিম এবং অসম-বাংলা সীমান্তে আর কাউকে পশ্চিমবঙ্গে ঢোকার ক্ষেত্রে বাধা দেওয়া হবে না। দূর-দূরান্ত থেকে বাংলায় আসা মানুষকে বাংলা সীমানায় আটকে দেওয়া হচ্ছিল এতদিন। নির্দিষ্ট অনুমতি পত্র থাকা সত্ত্বেও পুলিশ বাংলায় প্রবেশের ক্ষেত্রে আপত্তি জানাচ্ছিল। ফলে বাড়ির কাছে এসেও চরম হয়রানির শিকার হচ্ছিলেন বাসিন্দারা। এ প্রসঙ্গে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "ভিন রাজ্য থেকে বাংলায় প্রবেশের ক্ষেত্রে যে নিষেধাজ্ঞা ছিল, তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হল। তবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা হবে বাইরে থেকে এলে। সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশ এবং প্রশাসন গোটা বিষয়টিতে নজরদারি চালাবে।" তবে যে সমস্ত জায়গায় করোনার প্রাদুর্ভাব বেশি, অর্থাৎ মহারাষ্ট্র, দিল্লি, গুজরাতের মত রাজ্য থেকে এলে বাংলায় প্রপবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বহালই থাকবে। এক্ষেত্রে কড়া নজরদারি এবং প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমেই বাংলায় প্রবেশের অনুমতি মিলবে কিনা সেই গোটা বিষয়টি সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশ এবং প্রশাসনের কর্তারা খতিয়ে দেখবেন।

অন্যদিকে, রাজ্য থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাওয়া কিংবা ভিন রাজ্য থেকে সীমানা পার হয়ে সড়কপথে যদি কেউ বাংলায় ফিরতে চান, তাঁদের জন্য রাজ্য সরকারের তরফে নতুন পাস চালু করা হয়েছে। সরকারি ওয়েবসাইটে গিয়ে বাংলায় দুটি ENTRY এবং একটি  EXIT পাসের লিঙ্কের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করলে সহজেই মানুষ নিজেদের গন্তব্যে পৌঁছে যাবেন বলে জানান স্বরাষ্ট্রসচিব। তবে এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নথি অনলাইনে আগে থেকে জমা দিতে হবে। বিষয়টির গুরুত্ব পর্যালোচনা করে  তবেই মিলবে অনুমতি। সরকারি ওয়েবসাইটে  দেওয়া রয়েছে সংশ্লিষ্ট পাসগুলোর লিঙ্কও। পশ্চিমবঙ্গের বাইরের বাসিন্দাদের জন্য যেমন পাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তেমনই এ রাজ্যে ঢোকার জন্য অনুমতিপত্রেরও ব্যবস্থা রয়েছে 'এগিয়ে বাংলা'  পোর্টালে।

এ রাজ্যেরই এমন অনেক বাসিন্দা রয়েছেন লকডাউনের জেরে যাঁরা রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে। একইরকমভাবে অন্যান্য রাজ্যে আটকে রয়েছেন অনেকে। তাঁদের নাম রেজিস্ট্রেশনের জন্য একটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরও দেওয়া হয়েছে। সরকারি ওয়েবসাইটে দেওয়া হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরটি হল ৮০১৭৮৪৫৫৫৫। এই নম্বরে নিজেদের সম্পর্কে সবিস্তার তথ্য দিয়ে নাম রেজিস্ট্রি করাতে পারবেন আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিক, তীর্থযাত্রী, ছাত্র কিংবা যে কোনও নাগরিক যাঁরা নিজেরা সড়কপথে  নিজেদের গন্তব্যে ফিরতে চান।

লকডাউনের জেরে পশ্চিমবঙ্গের অনেকেই আটকে পড়েছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। আবার এমন বহু মানুষ আছেন যাঁরা এ রাজ্যের নানা জায়গায় আটকে রয়েছেন। তাঁরাও যাতে পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে নিজ নিজ গন্তব্যস্থলে  বিনা বাধায়, হয়রানির শিকার না হয়ে ফিরে যেতে বা আসতে পারেন সেই সমস্ত মানুষদের কথা ভেবেই এই  ‘অটোমেটেড ই-পাস সিস্টেম’ চালু করা হল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন সরকারের তরফে।

VENKATESWAR  LAHIRI 

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 8, 2020, 1:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर