CoronaVirus| বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ বাংলাদেশ ভবন সহ অন্য জায়গা

CoronaVirus| বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনির্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ বাংলাদেশ ভবন সহ অন্য জায়গা
Representative Image

শুধু বসন্ত উৎসব অথবা পৌষমেলা নয়, বছরের বেশিরভাগ সময় বাংলাদেশ ভবন ও বিশ্বজোড়া খ্যাতি সম্পন্ন শান্তিনিকেতনের অন্যান্য জায়গাগুলিকে দর্শনের জন্য বিপুল পরিমাণে পর্যটকদের সমাগম ঘটে।

  • Share this:

#বীরভূম: করোনার জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বিশ্বভারতীর বাংলাদেশ ভবন থেকে শান্তিনিকেতন গৃহ। বিশ্ববাসীদের কাছে করোনাভাইরাস ত্রাসে পরিণত হয়েছে। চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাস বর্তমানে বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশকে ধীরে ধীরে গ্রাস করছে। বাদ যায়নি ভারতও। ভারতে ইতিমধ্যেই এই ভাইরাসের সংক্রমনের ঘটনা ঘটেছে। এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে আগাম সর্তকতা হিসাবে গত শুক্রবার বিশ্বভারতীর EC বৈঠকের পর বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখা হবে বাংলাদেশ ভবন, রবীন্দ্র ভবন প্রদর্শশালা ও শান্তিনিকেতন গৃহ।করোনাভাইরাস থেকে সর্বসাধারণের সুরক্ষার জন্য এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানানো হয় বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। তবে রবীন্দ্র ভবন ও বাংলাদেশ ভবনের গ্রন্থাগার খোলা রাখা হবে।

শুধু বসন্ত উৎসব অথবা পৌষমেলা নয়, বছরের বেশিরভাগ সময় বাংলাদেশ ভবন ও বিশ্বজোড়া খ্যাতি সম্পন্ন শান্তিনিকেতনের অন্যান্য জায়গাগুলিকে দর্শনের জন্য বিপুল পরিমাণে পর্যটকদের সমাগম ঘটে। এসকল পর্যটকরা ভিন জেলা, ভিন রাজ্য ছাড়াও আসেন বিদেশ থেকেও। আর এই সকল মানুষের সমাগমে যাতে করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কোনরকমে ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্যই আগাম এই সর্তকতা ও বন্দোবস্ত। বিশ্বভারতীর বসন্ত উৎসব বন্ধ হয়ে যাওয়া ও বিশ্বভারতীর এমন গুরুত্বপূর্ণ দর্শনীয় স্থানগুলি বন্ধ রাখার কারণে ইতিমধ্যেই মাথায় হাত পড়েছে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের।কারণ স্থানীয় এই সকল ব্যবসায়ীরা বিশ্বভারতীর উপরই অনেকটা নির্ভরশীল তাদের মুনাফা লাভের ক্ষেত্রে।

First published: March 11, 2020, 10:28 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर