corona virus btn
corona virus btn
Loading

রায়গঞ্জের পর এবার কালিয়াগঞ্জেও অনুষ্ঠিত হল করোনা মাতার পূজা

রায়গঞ্জের পর এবার কালিয়াগঞ্জেও অনুষ্ঠিত হল করোনা মাতার পূজা

এলাকার মহিলাদের আত্মবিশ্বাস এভাবেই করোনাকে দেবীরূপে পূজা করে তাঁকে শান্ত করা যাবে এবং দেশকে করোনামুক্ত করা সম্ভব হবে।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: কালিয়াগঞ্জ করোনা পূজা রায়গঞ্জের পর জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়ল।আজ কালিয়াগঞ্জের শ্রমতি নদীর তীরে এলাকার মহিলারা করোনা পূজা করলেন।করোনা ভাইরাস নিয়ে সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত।  করোনাকে শান্ত করতে এবার তাকে দেবী রূপে পূজো দিলেন বাসিন্দারা। প্রার্থনা করলেন যাতে দেবী করোনা শান্ত হয়ে এই পৃথিবী ছেড়ে চলে যান আর পৃথিবীর মানুষ পরিবার পরিজন নিয়ে সুস্থভাবে শান্তিমতো থাকতে পারে। অভিনব এই ঘটনা ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জে৷

শ্রীমতি নদীর তীরে এই করোনা পূজার সাক্ষী হলেন কালিয়াগঞ্জের বাসিন্দারা। ৯ টি লাড্ডু, ৯ টি লবঙ্গ এবং ৯ টি জবা ফুল ও সরবত দিয়ে মাটিতে করোনা পূজা করেন। পূজা সমাপ্ত করে সেই ভোগ লাড্ডু, ফুল ও অন্যান্য সামগ্রী মাটিতে পুঁতে দেন। এলাকার মহিলাদের আত্মবিশ্বাস এভাবেই করোনাকে দেবীরূপে পূজা করে তাঁকে শান্ত করা যাবে এবং দেশকে করোনামুক্ত করা সম্ভব হবে।

মানুষ এখন যখন মঙ্গল গ্রহে পা রেখে বিজ্ঞানের চরম উন্নতির শিখরে পৌঁছে গিয়েছে, ডিজিটাল যুগ শুরু হয়েছে। দেশ ও পৃথিবীতে আসা করোনা নামক মহামারীকে জয় করার অক্লান্ত প্রয়াস চালাচ্ছে বিজ্ঞান ও স্বাস্থ্য দফতর। কয়েক লক্ষ করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন। সেই সময় একপ্রকার অন্ধ কুসংস্কারের বশে আচ্ছন্ন হয়ে করোনা ভাইরাসকে দেবী রূপে পূজা করে তাকে শান্ত করার প্রয়াস নিলেন কালিয়াগঞ্জের বাসিন্দারা। কোনও মূর্তি বা ছবি নয়, মাটিতেই ৯ টি জবা ফুল, ৯ টি লাড্ডু, ৯ টি লবঙ্গ দিয়ে "করোনা মাতার " পূজা করলেন বেশ কয়েকজন মহিলা।

মহিলাদের দাবি, একমাত্র এভাবেই করোনাকে জয় করা যাবে। পুজো দিয়েই করোনাকে শান্ত করে এই পৃথিবী করোনা মুক্ত করা যাবে।  করোনার করুণা পেতে করোনা ভাইরাসের ছোবল থেকে নিজেদের রক্ষা করতে মহিলাদের এই অভিনব পূজা এলাকায় আলোড়ন ফেলে দিয়েছে।কালিয়াগঞ্জ বিজ্ঞান মঞ্চের সভাপতি তপন চক্রবর্তী জানিয়েছেন,হিন্দুদের অন্য পূজার সঙ্গে এই করোনা মাতার আর্বিভাব কবে তা তার জানা নেই। কিছু মানুষের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে এই নতুন মাতার আর্বিভাব ঘটিয়েছে।এর বাস্তব কোন যুক্তি নেই বলে তপনবাবু জানিয়ে দিয়েছেন।

Uttam Paul

Published by: Elina Datta
First published: June 5, 2020, 7:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर