corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আবহে কি এবার জোড়াসাঁকোয় নিঃসঙ্গ কাটবে কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী? ২৫ বৈশাখ নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা

করোনা আবহে কি এবার জোড়াসাঁকোয় নিঃসঙ্গ কাটবে কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী? ২৫ বৈশাখ নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা

প্রত্যেক বছরই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তীতে হাজার হাজার কবিগুরু অনুরাগী, দর্শনার্থীদের সমাগম হয় জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। ২৫ শে বৈশাখ এই দিনটিকে কেন্দ্র করে দিনভর একাধিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ও তার জেরে চলা লকডাউন। রাজ্যে এই মুহূর্তে একাধিক কর্মসূচিকে স্থগিত করে রাখা হয়েছে।এবার সেই স্থগিত কর্মসূচির তালিকা কার্যত কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী পড়তে চলেছে? অন্তত এটাই এখন প্রশ্ন কবিগুরুর অনুরাগীদের কাছে। আর কিছুদিন বাদেই ২৫শে  বৈশাখ। সাধারণত শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় ও কলকাতায় রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে সাড়ম্বরে পালিত হয় কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী। কিন্তু এবার সামগ্রিকভাবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাঁধ সেজেছে কবিগুরুর জন্ম জয়ন্তী পালনে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে আপাতত কোনো জমায়েত নিষিদ্ধ করা আছে। তার জেরে পঁচিশে বৈশাখ কলকাতার জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে আদৌও কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী পালন করা যাবে নাকি তা নিয়ে চিন্তিত কর্তৃপক্ষ। উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরী জানিয়েছেন " কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে কিভাবে পালন করা হবে তা নিয়ে সোমবার বৈঠক করেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।" বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর সে ক্ষেত্রে ঘরোয়াভাবেই কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী পালন করা হতে পারে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। অন্যদিকে  প্রত্যেক বছরই ২৫ বৈশাখের আগের দিন অর্থাৎ ২৪ বৈশাখ রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় সমাবর্তন অনুষ্ঠান করে। এবছর সেই সমাবর্তন অনুষ্ঠান স্থগিত হয়ে নভেম্বর মাসের দিকে হতে পারে বলেই জানা গিয়েছে।

প্রত্যেক বছরই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তীতে হাজার হাজার কবিগুরু অনুরাগী, দর্শনার্থীদের সমাগম হয় জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। ২৫ শে বৈশাখ এই দিনটিকে কেন্দ্র করে দিনভর একাধিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রথমার্ধে সকাল ছটা থেকেই কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে গান, নৃত্যানুষ্ঠান সহ একাধিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের পাশাপাশি একাধিক খ্যাতনামা শিল্পীও সংগীত পরিবেশন করতে আসেন জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। বলা ভালো সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পা রাখার পর্যন্ত জায়গা থাকে না জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। প্রত্যেক বছর এই পুলিশকে ভিড় সামলাতে যথেষ্টই হিমশিম খেতে হয় ঠাকুর বাড়িতে। কিন্তু এবারের ছবিটা কার্যত আলাদা। তাই ঘরোয়াভাবেই জন্মজয়ন্তী ঠাকুরবাড়িতে করা হতে পারে বলেই বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যাচ্ছে। আর তাই মন খারাপ এবার রবীন্দ্র অনুরাগীদের। মন খারাপ রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ছাত্র-ছাত্রীদেরও।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের এক ছাত্রী বলেন "কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী আমাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর স্মৃতিবিজড়িত এই ঠাকুর বাড়িতে আমরা গত কয়েক বছর ধরে নিয়মিত অনুষ্ঠান পরিবেশন করে আসছি। কিন্তু এবছর সেই ভাবে অনুষ্ঠান না হতে পারায় মন খারাপ অবশ্যই থাকবে।" তবে শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরাই নয়, কবিগুরুর জন্মজয়ন্তীতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে একাধিক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরাও আসেন এই জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। ফলত এবারের কবিগুরুর জন্মদিন কার্যত নিঃসঙ্গ কাটতে চলেছে জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে।

Somraj Bandopadhyay

First published: May 3, 2020, 4:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर