ভারতীয় সংস্কৃতিকেই মানলেন ট্রাম্প ! করোনা ভয়ে হ্যান্ডসেক ছেড়ে নমস্কার করা শিখলেন

photo source twitter

করোনার জেরে সারা বিশ্বজুরে এখন ভারতীয় সংস্কৃতিরই জয় জয়াকার।

  • Share this:

    #আমেরিকা: যে বিদেশিরা একদিন ভারতীয়দের শিখিয়েছিল কিভাবে হাত মিলিয়ে অভ্যর্থনা জানাতে হয়, আজ তারাই হাঁটছে ভারতীয়দের পথে। করোনার প্রথম সতর্কবার্তা হল কারও সঙ্গে যেন হাত টাচ না হয়। বা হাত মেলানো না হয়। এবং কোথাও হাত লাগলে বার বার ভাল করে হাত ধুয়ে নিতে বলা হচ্ছে। তাই হাত না মিলিয়ে আজ সবাই নমস্কারের পথে হাঁটছে। আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী অনেকদিন আগেই বলেছিলেন, 'হ্যান্ডসেক ছেড়ে নমস্কার করতে শুরু করুন।' করোনা ভাইরাসের জন্যই এই বার্তা। তবে এ কথা ভারতীয়রা নিশ্চয় মেনেছেন। কারণ ভারতীয়রা সকলকে নমস্কারই করে থাকেন। কিন্তু বিদেশিরা ভারতীয়দের মতো করেই নমস্কার করছেন সকলকে।

    সম্প্রতি হোয়াইট হাউসেও মিলল নমস্কার করে অভিবাদনের নিদর্শন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী লিও ভারাদকার পরস্পরকে নমস্কারের মাধ্যমে অভিবাদন জানালেন। হোয়াইট হাউসের ওভাল অফিসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট সাংবাদিকদের জানান "আজকে আমরা হ্যান্ডসেক করিনি।" তখন এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, তাহলে আপনারা শুভেচ্ছা বিনিয়ম করলেন কী করে? ট্রাম্পের জাবাব আসার আগেই আইরিশ প্রধানমন্ত্রী দু হাত জড়ো করে নমস্কার করলেন। ট্রাম্পও তখন হাসিমুখে ফের নমস্কার করেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান, "রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হওয়ার দরুন তাঁকে সকলের সঙ্গে হ্যান্ডসেক করতে হত। তিনি সদ্য ভারত থেকে ফিরে এসেছেন এবং নমস্কার করার প্রথা সাদরে গ্রহণও করেছেন। পাশাপাশি জাপানিদের মাথা নিচু করে অভিবাদনের পদ্ধতিও শিখে নিয়েছেন ট্রাম্প।" তিনি বলেন, "করোনা মোকাবিলায় ভারত এবং জাপান দুই দেশের অভিবাদন পদ্ধতিই গ্রহণযোগ্য।" অতএব করোনার জেরে সারা বিশ্বজুরে এখন ভারতীয় সংস্কৃতিরই জয় জয়াকার। তবে করোনা কিন্তু সারা বিশ্বে ধীরে ধীরে মারাত্বক আকার ধারন করছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) ও কিন্তু বার বার বলছে হাত না মেলাতে।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: