corona virus btn
corona virus btn
Loading

'আগেভাগেই সতর্ক করা হয়েছিল, অকারণে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নিয়ে মাতামাতি করেন ট্রাম্প'

'আগেভাগেই সতর্ক করা হয়েছিল, অকারণে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নিয়ে মাতামাতি করেন ট্রাম্প'
হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহার হয় কোনও যুক্তি ছাড়াই, অভিযোগ মার্কিন গবেষকের

এ যাবৎ মার্কিন মুলুকে ৭০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। আক্রান্ত ১২ লক্ষের বেশি লোক।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: করোনার বিরুদ্ধে প্রাথমিক প্রস্তুতিতে বিস্তর ঘাটতি ছিল। শেষে বিপদ বুঝতে পেরে তড়িঘড়ি কোনও প্রমাণ ছাড়া হাইড্রোক্লোরোকুইনের শরণাপন্ন হন ট্রাম্প। মঙ্গলবার মার্কিন সরকারের এক উচ্চপদস্থ বিজ্ঞান গবেষক এমনটাই বললেন।

বায়োকেমিক্যাল অ্যাডভান্সড রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অথরিটির প্রাক্তন ডিরেক্টর ডক্টর রিক ব্রাইট মঙ্গলবার অভিযোগ করেন, কোনও প্রমাণ ছাড়াই হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন করোনার ওষুধ প্রচার করার জন্য তাঁর ওপর রাজনৈতিক চাপ তৈরি করা হয়। তিনি রাজি না হলে তাঁকে বাধ্য করা হয় নিজের পদ থেকে অনেক কম গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করতে।

মঙ্গলবার ব্রাইট সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন। সেখানে তিনি বলেন, "কোনও কারণ ছাড়াই অন্ধের মতো ভারত এবং পাকিস্তান থেকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নিতে ছুটেছিলেন দেশের উচ্চতম নেতৃত্ব। এই ম্যালেরিয়া ড্রাগের এফডিএ অনুমোদনও নেই।" ব্রাইট বলেন, এভাবে কোনও প্রমাণ ছাড়াই একটি ড্রাগের স্বপক্ষে সওয়াল করার ঘটনা তাঁকে এবং তাঁর সহকর্মীদের যথেষ্ট বিব্রতই করেছিল।

ব্রাইট তাঁর অপসারণের বিষয়টি বিশেষ আদালতের সামনে এনেছেন। তিনি চান তাঁকে অপসারণের কার্যকারণ পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা হোক। আবার স্বীয় পদেই বহাল হতে চান তিনি।

মার্কিন স্বাস্থ্যদফতরের অবশ্য দাবি, ব্রাইটকে ন্যাশানাল ইন্সটিউট অফ হেলথে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল, নমুনা পরীক্ষা সংক্রান্ত কাজের জন্য।সংস্থার মুখপাত্র কেটলিন ওকলে বলেন, "এই সময়ে মার্কিন নাগরিকদের কথা ভেবে কাজে যোগ না দিয়ে ব্রাইট পিছিয়ে যান। তাঁর মুখপাত্র জানিয়ে দেন তিনি অসুস্থ।"

এ যাবৎ মার্কিন মুলুকে ৭০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। আক্রান্ত ১২ লক্ষের বেশি লোক। এই পরিস্থিতিতে ব্রাইটের দাবি, জানুয়ারি থেকে বলা হলেও ট্রাম্প-প্রশাসন করোনা দমনে ঢিলে দিয়েছিলেন , তারই পরিণতি এই মড়ক।

Published by: Arka Deb
First published: May 6, 2020, 8:57 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर