• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • করোনা এড়ানোর সবচেয়ে বড় উপায়! নতুন বছরে ইমিউনিটি বাড়ান কয়েকটি খাবারেই

করোনা এড়ানোর সবচেয়ে বড় উপায়! নতুন বছরে ইমিউনিটি বাড়ান কয়েকটি খাবারেই

মাস্ক, স্যানিটাইজার ও সামাজিক দূরত্ব ছাড়া এই মারণ ভাইরাস থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় ইমিউনিটি বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা। ভ্যাকসিনের দেখা মিললেও নিজের শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার মতো সমাধান তাতে মিলবে না। আর তাই এই মহামারীর মধ্যেই ইমিউনিটি বাড়াতে কয়েকটি খাবার নিয়মিত ডায়েটে রাখা প্রয়োজনীয়।

মাস্ক, স্যানিটাইজার ও সামাজিক দূরত্ব ছাড়া এই মারণ ভাইরাস থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় ইমিউনিটি বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা। ভ্যাকসিনের দেখা মিললেও নিজের শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার মতো সমাধান তাতে মিলবে না। আর তাই এই মহামারীর মধ্যেই ইমিউনিটি বাড়াতে কয়েকটি খাবার নিয়মিত ডায়েটে রাখা প্রয়োজনীয়।

মাস্ক, স্যানিটাইজার ও সামাজিক দূরত্ব ছাড়া এই মারণ ভাইরাস থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় ইমিউনিটি বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা। ভ্যাকসিনের দেখা মিললেও নিজের শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার মতো সমাধান তাতে মিলবে না। আর তাই এই মহামারীর মধ্যেই ইমিউনিটি বাড়াতে কয়েকটি খাবার নিয়মিত ডায়েটে রাখা প্রয়োজনীয়।

  • Share this:

    করোনা আতঙ্কে কেটে গেল ২০২০। বছরের অধিকাংশ সময়টাই করোনার হাত থেকে বাঁচার চেষ্টা করে গিয়েছেন গোটা বিশ্ববাসী। এই ছোট্ট একটা ভাইরাস যে সমগ্র মানবজাতির স্বাভাবিক জীবনযাপনকে ব্যাহত করতে পারে তা কেউ কল্পনাও করতে পারেনি। তাই এখন নিউ নর্মালের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে মানুষ।

    মাস্ক, স্যানিটাইজার ও সামাজিক দূরত্ব ছাড়া এই মারণ ভাইরাস থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় ইমিউনিটি বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা। ভ্যাকসিনের দেখা মিললেও নিজের শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার মতো সমাধান তাতে মিলবে না। আর তাই এই মহামারীর মধ্যেই ইমিউনিটি বাড়াতে কয়েকটি খাবার নিয়মিত ডায়েটে রাখা প্রয়োজনীয়। কিন্তু তার আগে জানা দরকার, কেন ইমিউনিটি বাড়ানোর দরকার আছে।

    বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শরীরে ফরেন বডি বা ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস, প্যারাসাইট, ও অন্যান্য ইনফেকশনের সঙ্গে লড়াই করার জন্য ইমিউনিটিরই প্রয়োজন। বিভিন্ন রকমের ইমিউনিটি মানুষের মধ্যে উপস্থিত। যেমন শৈশব থেকেই কারোর শরীরে ইমিউনিটি তৈরি হতে পারে। আবার ভ্যাকসিনের মাধ্যমেও ইমিউনিটি আসতে পারে। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেও ইমিউনিটি তৈরি হয়।

    তবে কিছু খাবার রয়েছে যেগুলি সহজে ইমিউনিটি বাড়াতে সক্ষম। যেমন ওয়ালনাট, আমন্ড সহ বিভিন্ন রকমের বাদামে যথেষ্ট পরিমাণে আয়রন, প্রোটিন থাকে যা ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে।

    এছাড়া নানারকমের চা, যেমন আদা চা, তেজপাতা চা, এলাচ ও গোলমরিচ দেওয়া চা শরীরকে সতেজ রাখে। হার্বাল চায়ের মধ্যে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা গোটা ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে। ‌

    এছাড়া ডায়েটে নিয়মিত কাঁচা হলুদ ও মধু দেওয়া দুধ রাখতে পারেন। ইমিউনিটি বাড়ানোর সঙ্গে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল হিসেবেও এটি কাজ করে। এছাড়া স্ট্রেসমুক্ত করতেও এর জুড়ি মেলা ভার।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: