করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

গা ঘেঁষাঘেঁষিতেই পালিয়ে যাবে করোনা! দাবি বর্ধমানের তৃণমূল নেতার

গা ঘেঁষাঘেঁষিতেই পালিয়ে যাবে করোনা! দাবি বর্ধমানের তৃণমূল নেতার
এভাবেই সামাজিক দূরত্ব না মেনেই বিলি করা হলো ত্রাণ৷

রবিবার বিকেলে বর্ধমান শহরের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের লোকো বাজার এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে দরিদ্র বাসিন্দাদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণের কর্মসূচি নেওয়া হয়।

  • Share this:

#বর্ধমান: গা ঘেঁষাঘেঁষিতেই নাকি পালিয়ে যাবে করোনা! এমনটাই বলছেন বর্ধমানের এক  তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। তৃণমূল কংগ্রেসের ত্রাণ বিলির ঠেলায় মাথায় উঠল সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সতর্ক বার্তা। সেই প্রশ্ন তুলতেই তৃণমূলের স্থানীয় নেতা বললেন, মানুষে মানুষে সংস্পর্শেই করোনা পালাবে।

এক হাজারেরও বেশি পুরুষ মহিলা হুড়োহুড়ি ঠেলাঠেলি করে সেই ত্রাণ নিলেন। ত্রাণ বিলির এই ছবি দেখে শিউড়ে উঠছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা বলছেন, এই ভিড় থেকে করোনার সংক্রমণ শহরজুড়ে ছড়িয়ে পড়লে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

দেশ তথা রাজ্য জুড়ে করোনার সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সংক্রমণের রাশ টানতে কন্টেইনমেন্ট জোন ও বাফার জোনকে এক করে নতুন করে লকডাউন শুরু হয়েছে। লকডাউন কড়াকড়ি করতে পুলিশকে নজরদারি বাড়াতে বলা হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে বার বার সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলার আবেদন জানানো হচ্ছে। ঠিক সেই সময় রাজ্যের শাসক দলের এই ভূমিকা নিয়ে বর্ধমানে বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

রবিবার বিকেলে বর্ধমান শহরের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের লোকো বাজার এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে দরিদ্র বাসিন্দাদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণের কর্মসূচি নেওয়া হয়। সেখানে প্রত্যেককে চাল, আলু, তেল, সয়াবিন, স্যানিটাইজার দেওয়া হবে বলে আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল। সেই মতো হাজির হন বাসিন্দারা। গা ঘেঁষে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকলেন তাঁরা। একের হাত চাপল অন্যের কাঁধেও। অনেকের মুখে মাস্ক বা ফেস কভারও ছিল না।

মঞ্চে দাঁড়িয়ে তখন ত্রাণ বিলি করছেন স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা খোকন দাস। স্থানীয় নেতা শিবশঙ্কর ঘোষ হুড়োহুড়ি, ঠেলাঠেলির কথা স্বীকার করে বললেন, এই গা ঘেঁষাঘেঁষি, পরস্পরের সংস্পর্শেই পালিয়ে যাবে করোনা!

জেলায় এদিন পর্যন্ত ২১০ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি জন আক্রান্ত হয়েছেন বর্ধমান শহরে। এই শহরে এদিন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২০ জন। বর্ধমান শহরে সাতটি কন্টেইনমেন্ট জোনে লকডাউন চলছে। ঠিক তখন এভাবে ত্রাণ বিলি দেখে চোখ কপালে উঠেছে অনেকেরই।

Saradindu Ghosh

Published by: Debamoy Ghosh
First published: July 12, 2020, 7:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर