এই ৬ দেশকে আজ থেকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে চলেছে ভারত

এই ৬ দেশকে আজ থেকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে চলেছে ভারত
বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে এসব ভ্যাকসিন বিতরণ করা হবে। তবে এসব দেশের জন্য প্রয়োজনীয় সব ভ্যাকসিনই বিনামূল্যে দেওয়া হবে না।

বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে এসব ভ্যাকসিন বিতরণ করা হবে। তবে এসব দেশের জন্য প্রয়োজনীয় সব ভ্যাকসিনই বিনামূল্যে দেওয়া হবে না।

  • Share this:
    #নয়াদিল্লি : পাকিস্তান ব্যতীত বাংলাদেশ, মায়ানমার নেপাল-সহ ৬টি প্রতিবেশী দেশকে বিনামূল্যে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে এসব ভ্যাকসিন বিতরণ করা হবে। তবে এসব দেশের জন্য প্রয়োজনীয় সব ভ্যাকসিনই বিনামূল্যে দেওয়া হবে না।একটি ট্যুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, বিশ্ব সম্প্রদায়ের স্বাস্থ্যের সেবা করতে দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত অংশীদারী হিসাবে ভারতকে গভীরভাবে সম্মানিত করা হয়েছে ৷  বুধবার থেকে বেশ কয়েকটি দেশে ভ্যাকসিন সরবরাহ শুরু হবে এবং পরবর্তীকালে তা আরও বাড়ানো হবে বলে তিনি জানান৷ভারতে শুরু হওয়া টিকাদান কর্মসূচিতে দুইটি ভ্যাকসিন ব্যবহার করা হচ্ছে। এর একটি অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি কোভিশিল্ড, অপরটি ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন। কোভিশিল্ড উৎপাদন করছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট। এই ভ্যাকসিনটি নিয়ে খুব একটা বিতর্ক না থাকলেও চূড়ান্ত ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ হওয়ার আগেই কোভ্যাক্সিনের অনুমোদন বিতর্ক চলছে।প্রতিবেশী দেশগুলোর তাৎক্ষণিক চাহিদা পূরণে ভ্যাকসিনের প্রথম চালান বিনামূল্যে বিতরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। এর মধ্যে কোভ্যাক্সিন পাঠানো হবে মঙ্গোলিয়া, ওমান, মায়ানমার, ফিলিপিন, বাহরাইন, মালদ্বীপ ও মরিশাসে। আর কোভিশিল্ড পাঠানো হবে ভুটান, আফগানিস্তান, নেপাল, বাংলাদেশ এবং সিশেলস-এ।রফতানির পর ভারতে ব্যবহারের জন্য কত ভ্যাকসিন প্রাপ্য তা নিয়ে বৈঠকও করেছেন দেশের কর্মকর্তারা। এক কর্মকর্তা জানান, ভারতে বর্তমানে পাঁচ কোটি ডোজ টিকা মজুত রয়েছে। এর মধ্যে আড়াই কোটি ডোজ রফতানি করা যাবে।প্রসঙ্গত, দেশবাসীকে করোনার হাত থেকে বাঁচাতে ১৬ তারিখ থেকে মাস ভ্যাকসিনেশন ড্রাইভ শুরু হয়েছে দেশে। এর একদম প্রথম পর্যায়ে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স, পুলিশ-সহ দেশের পরিষেবার প্রথম সারিতে থাকা মানুষজনকে ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু বেশ কিছু রিপোর্ট বলছে, ভ্যাকসিনের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া থাকতে পারে। আর তাই ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে সহকর্মীদের পরামর্শ নিতে শুরু করেছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। অনেকেই Google-এ এর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া সম্পর্কেও জেনে নিচ্ছেন বলে খবর মিলছে।
    Published by:Simli Dasgupta
    First published: