করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে বাজারে ভেষজ আবিরের চাহিদা বাড়ছে

করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে বাজারে ভেষজ আবিরের চাহিদা বাড়ছে

করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক যে ভাবে ছড়াচ্ছে তার প্রভাব পড়তে চলেছে রঙের উৎসবে। সেই কারণেই ভেষজ আবিরের দিকে ঝুঁকছে মানুষ।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে এখন সারাদেশ। সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে দোল না খেলারই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অনেকে। যারা খেলবেন তাদেরও রাসায়নিক রংয়ের থেকে বেশি পছন্দ ভেষজ আবির। কিন্তু সমস্যা একটাই সব জায়গাতে ভেষজ আবির পাওয়া যায় না। ভেষজ আবির বলে যা বাজারে বিক্রি হয় তা আসলে কি সেটাও অজানা। এই ভেষজ আবিরের যোগান দিতে কয়েকজন বন্ধু মিলে তৈরি করল একটি সংস্থা। সংস্থার মূল উদ্দেশ্য রাসায়নিক জিনিসের খারাপ প্রভাব কীভাবে মানুষের মধ্যে পড়ে তা বোঝানো। একই সঙ্গে ভেষজ জিনিস মানুষের মধ্যে কিভাবে পৌঁছে দেওয়া যায় তার চিন্তা-ভাবনা শুরু করেছিলেন তাঁরা। বাজার থেকে ফুল সংগ্রহ করে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগারে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে তা থেকেই ভেষজ আবির তৈরি শুরু করলেন তাঁরা। দোলের আগে কলকাতার কয়েকটি জায়গাতে স্টলও খুলছেন তাঁরা। এখানেই তারা বিক্রি করবেন ভেষজ আবির। আবির বিক্রির পাশাপাশি রাসায়নিক বস্তুর কুপ্রভাব সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করবেন তাঁরা। এ বছর ২০০ কিলো ভেষজ আবির উৎপাদন করতে পেরেছে এই সংস্থা। তবে পরের বছর এটা অনেকটাই বাড়ানো যাবে বলে আশা সংস্থার কর্তাদের। আবিরের পাশাপাশি আগামীদিনে ফুড কালার সহ আরো বেশ কিছু পণ্য তৈরি করবে সংস্থা।

সংস্থার কর্ণধার কৃষ্ণেন্দু বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, 'যে কোনও রাসায়নিক জিনিস থেকে সংক্রমনের সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। সে ক্ষেত্রে ভেষজ জিনিস থেকে সংক্রমনের সম্ভাবনা অনেকটাই কম থাকে। ভেষজ জিনিসের প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ানোর জন্য সচেতনতা শিবির চালু করা হয়েছে। কলকাতার গড়িয়াহাট, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি করুণাময়ী সহ সেক্টর ফাইভের একাধিক জায়গায় এই আবির পাওয়া যাবে। সেখানেই মানুষের মধ্যে সচেতনতা চালানো হবে।'

করোনা ভাইরাস থেকে সতর্কতা অবলম্বন করতে ইতিমধ্যেই হোলি না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদির পথে হেঁটেই হোলি খেলবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-ও৷ একই সঙ্গে সাধারণ মানুষকেও সতর্ক করেছেন তিনি। করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক যে ভাবে ছড়াচ্ছে তার প্রভাব পড়তে চলেছে রঙের উৎসবে। সেই কারণেই ভেষজ আবিরের দিকে ঝুঁকছে মানুষ। তবে একবার মানুষ সচেতন হলে এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়বে বলেই মনে করছে সংস্থা।

UJJAL ROY 

First published: March 6, 2020, 11:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर