corona virus btn
corona virus btn
Loading

খুব তাড়াতাড়ি বর্ধমান শহরে পুরোপুরি লকডাউন হতে চলেছে? আশঙ্কা এমনই

খুব তাড়াতাড়ি বর্ধমান শহরে পুরোপুরি লকডাউন হতে চলেছে? আশঙ্কা এমনই

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের মধ্যে না এলে যত দ্রুত সম্ভব জেলার সদর শহর বর্ধমান পুরোপুরি লকডাউন করা হবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর মিলেছে।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: বর্ধমান শহরে পুরোপুরি লকডাউন করার কথা ভাবছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। আপাতত শহরের একটা বড় অংশে লকডাউন চলছে। এ ছাড়াও শহরের বাজার এলাকাগুলিতে ভিড় নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। একদিন অন্তর খুলছে শহরের বেশিরভাগ এলাকার দোকানপাট। এরপরেও করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের মধ্যে না এলে যত দ্রুত সম্ভব জেলার সদর শহর বর্ধমান পুরোপুরি লকডাউন করা হবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর মিলেছে। সোমবার জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, করোনার সংক্রমণ রুখতে সব রকম প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। প্রয়োজনে পুরোপুরি লকডাউন করার সম্ভাবনা রয়েছে।

বর্ধমান শহরে ইতিমধ্যেই ৪৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। ব্যাপকভাবে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় বর্ধমান শহরের বড়নীলপুর ছোটনীলপুর এলাকা পুরোপুরি লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। বর্ধমানের লোকো এলাকাতেও লকডাউন চলছে। বর্ধমানের খোসবাগান এলাকাও বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়েছে। স্টেশন বাজার-সহ বেশ কয়েকটি বাজার বসার সময়সীমা কমানো হয়েছে। নীলপুর বাজার সপ্তাহে তিন দিন খোলা থাকছে। এছাড়াও বি সি রোড, বড়বাজার, চাঁদনী চক, সোনাপট্টি সহ মূল বাজার এলাকাগুলির অর্ধেক করে দোকান প্রতিদিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এরপরও করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন।

বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বেশ কয়েকজন চিকিৎসক ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।  কয়েক জন পুলিশ কর্মী অফিসারও আক্রান্ত হয়েছেন। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করছে। করোনা সংক্রমণে রাশ টানতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। মাস্ক  না ব্যবহার করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে মাইকে ঘোষণা করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে কড়া নজরদারি চালাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন। আগামী কয়েকদিনের সংক্রমণের চিত্র দেখে নিতে চাইছে জেলা প্রশাসন। সংক্রমণ একইভাবে ছড়াতে থাকলে পুরোপুরি লকডাউন ছাড়া দ্বিতীয় কোনও পথ খোলা থাকবে না বলে জেলা প্রশাসনের এক পদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন।

Published by: Simli Raha
First published: July 20, 2020, 5:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर