লকডাউনেও বাজারে ভিড় দেখে আতঙ্কিত বিশেষজ্ঞরা !

লকডাউনেও বাজারে ভিড় দেখে আতঙ্কিত বিশেষজ্ঞরা !

লক ডাউনেও বাজারে ভিড় করছেন বাসিন্দারা। এক সঙ্গে গা ঘেষাঘেষি করে কিনছেন আলু পেঁয়াজ শাক সবজি।

  • Share this:

#বর্ধমান:  লক ডাউনেও বাজারে ভিড় করছেন বাসিন্দারা। এক সঙ্গে গা ঘেষাঘেষি করে কিনছেন আলু পেঁয়াজ শাক সবজি। তা থেকে ছড়াতে পারে করোনা সংক্রমণ- চিকিৎসকদের চরম সতর্কতাকেও পাত্তা দিচ্ছেন না অনেকেই। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এভাবে বাজারে সবাই ভিড় করলে লকডাউনের যাবতীয় উদ্দেশ্য ধুলোয় মিশে যাবে। তাঁরা বলছেন, দেশকে করোনার ভয়াবহ বিপদ থেকে বাঁচাতে হলে নিজেকে ও পরিবারের সকলকে বাঁচাতে হলে নিজেকে গৃহবন্দি রাখা অবশ্যই প্রয়োজন। কারণ এই সময়টাতেই করোনা ভাইরাস বহু মানুষের দেহে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই এখন  বিচ্ছিন্ন থাকাই সবার আগে জরুরি। কিন্তু তার বদলে লকডাউন চলা সত্ত্বেও বাসিন্দারা যেভাবে বাজারে বেরিয়েছেন তাতে হতাশ বিশেষজ্ঞরা।

মঙ্গলবার লকডাউনের জেরে বর্ধমান শহরের বেশির ভাগ এলাকাই যখন শুনশান তখন বাজারগুলিতে দেখা গেল ক্রেতাদের থিক থিকে ভিড়। বর্ধমানের স্টেশন বাজার, নীলপুর বাজার, রানিগঞ্জ বাজার, তেঁতুল তলা বাজার, কালনা গেট বা পুলিশ লাইন বাজার সর্বত্রই সকাল থেকে ক্রেতাদের ভিড় দেখা গিয়েছে। উদ্বেগের বিষয়, অনেকেই বাজারে এসেছেন অভ্যাস মতো। তারা করোনা সতর্কতাকে কোনও পাত্তা না দিয়ে কোনও সাবধানতা ছাড়াই গা ঘেঁষাঘেঁষি করে দীর্ঘক্ষণ ধরে বাজার করেছেন। পাড়ার দোকানে পাওয়া যায়  এমন সামগ্রীও তারা কিনেছেন বাজার থেকে। তাঁরা বলছেন, সরকার ঘোষণা করেছে সবজি বাজার খোলা থাকবে। কিন্তু প্রশাসন যে বলছে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হবেন না সেকথা মাথায় রাখতে নারাজ অনেকেই।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, ঘরে থাকুন। খুব খুব প্রয়োজন ছাড়া ঘরেই থাকুন। খুব প্রয়োজন হলে পাড়ার দোকান থেকে আলু, ডিম, সয়াবিনে কাজ চালান। প্রাণে বাঁচলে তখন মনের মতো বাজার করার সুযোগ থাকবে।

SARADINDU GHOSH 

First published: March 24, 2020, 9:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर