করোনার প্রভাব ! এবার দোলে বাড়ছে ভেষজ আবিরের চাহিদা

করোনার প্রভাব ! এবার দোলে বাড়ছে ভেষজ আবিরের চাহিদা
photo source collected

ক্রেতারা ভেষজ আবিরের দিকেই ঝুঁকছেন। কাউন্টার খুলতেই উধাও ভেষজ আবির।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনা ভাইরাসের প্রভাব। এসে পড়েছে বসন্ত উৎসবেও। ইতিমধ্যেই একাধিক বসন্ত উৎসবের অনুষ্ঠান বাতিল করেছে উদ্যোক্তারা। আর এর জেরে বাড়ছে ভেষজ আবিরের চাহিদা। সামনেই রঙের উৎসব। হাতে আর মাত্র এক দিন। নানান রঙে রাঙিয়ে তোলার দিন। রঙ থেকেই নানান চর্ম রোগ হয়ে থাকে। তাই অনেক সাবধানতা অবলম্বন করেই খেলতে হয়। সেদিকে নজর রেখেই বন দফতর তৈরি করছে ভেষজ আবির। এবারেও বাজারে এসছে বন দফতরের তৈরি ভেষজ আবির। শুরুতে লাল আবির নিয়ে এসেছিল বন দপ্তর। এবারে বাজারে আসছে আরও অতিরিক্ত দুই রঙের আবির। সবুজ আর হলদে। শিলিগুড়ির বাগডোগরার কাছে তাইপু বিটে চলে আবির তৈরি।

মূলত শুকনো হলুদ, বেল পাতা এবং গাদা ফুল দিয়ে তৈরি হয় এই আবির। সঙ্গে এক ধরনের পাউডার মেশানো হয়। এর কোনওরকম পার্শপ্রতিক্রিয়া নেই। চর্ম রোগেরও কোনো সম্ভাবনা নেই। তাই শিলিগুড়ি সহ উত্তরবঙ্গের সর্বত্র বাড়ছে এর চাহিদা। গত কয়েক বছরে যেখানে ৬ কুইন্টাইল আবির তৈরি করেছিল বন দফতরের কর্মীরা। এবারে বাজারে আসছে ১০ কুইন্টালের কিছু বেশি ভেষজ আবির। মূলত শিলিগুড়িতে বন দফতরের নিজস্ব "বনজ" কাউন্টার থেকে মিলবে এই আবির। পাশাপাশি গোটা রাজ্যেই দফতরের কিছু আউটলেট আছে। রাজ্যে আর কোথাও বন দফতর এই আবির তৈরি করে না। চাহিদা থাকলেও কর্মীর সংখ্যা কম থাকায় বেশি মাত্রায় আবির তৈরি করতে পারছে না তারা। ইতিমধ্যেই শিলিগুড়ির বাজারে মিলছে বন দফতরের এই ভেষজ আবির। বন দফতরের এক কর্মী জানান, ভেষজ আবিরের চাহিদা বাড়ছে। কিন্তু তা মেটানো সম্ভব হচ্ছে না। এবারে বাজার বেশ ভাল। করোনা ভাইরাসের জেরে চিনের তৈরী রং নেই বাজারে। তা বলে কি আর রঙের উৎসব হবে না! তাই ক্রেতারা ভেষজ আবিরের দিকেই ঝুঁকছেন। কাউন্টার খুলতেই উধাও ভেষজ আবির।

PARTHA PRATIM SARKAR 

First published: March 7, 2020, 8:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर