• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • বয়স যা-ই হোক হার্ট ঠিক রাখতে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি...

বয়স যা-ই হোক হার্ট ঠিক রাখতে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি...

যাঁরা কোনও হৃদরোগে ভুগছেন, ডায়াবেটিস, হাই কোলেস্টেরল বা উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে, তাঁরা প্রেসক্রিপশন মেনে নিয়মিত ওষুধ খান।

যাঁরা কোনও হৃদরোগে ভুগছেন, ডায়াবেটিস, হাই কোলেস্টেরল বা উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে, তাঁরা প্রেসক্রিপশন মেনে নিয়মিত ওষুধ খান।

যাঁরা কোনও হৃদরোগে ভুগছেন, ডায়াবেটিস, হাই কোলেস্টেরল বা উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে, তাঁরা প্রেসক্রিপশন মেনে নিয়মিত ওষুধ খান।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনাকালে দীর্ঘ লকডাউনে সকলেই প্রায় গৃহবন্দি ছিলেন। যা অনেকাংশেই অবসাদের পরিমাণ বাড়িয়েছে। যাঁরা একটু অল্প বয়সের, তাঁরা ওয়র্ক ফ্রম হোমের পাশাপাশি খানিকটা হলেও নিজেদের ফিটনেসের খেয়াল রেখেছেন। ঘরেই টুকটাক ওয়ার্ক-আউট করেছেন। কিন্তু সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছেন বয়স্করা। সংক্রমণের ভয়ে তাঁদের নিয়মিত জীবনযাপনে একাধিক বাধা এসেছে। তা সে রেগুলার চেকআপ হোক বা বাইরে বেরিয়ে একটু হেঁটে আসা, অনেক কিছুই বন্ধ হয়েছে। যা আমাদের অজান্তেই গোপনে ক্ষতি করতে পারে আমাদের কার্ডিওভাসকুলার সিস্টেমের। তাই আমাদের সচেতন হতে হবে। যত্ন নিতে হবে নিজেদের কার্ডিওভাসকুলার সিস্টেমের।

দেখে নিন কেন বিষয়গুলি মেনে চললে সুস্থ থাকবে আপনার হৃদযন্ত্র ও স্বাস্থ্য। ১. ডায়েট- শরীর ও হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে যথাযথ ডায়েট কিন্তু খুব জরুরি। ফাস্ট ফুড বা জাঙ্ক ফুড না খেয়ে বেশি পরিমাণে শাকসবজি ও ফল খান। মাছ, মাংস খান। দুধ পান করুন। আর এই সবের সঙ্গে পর্যাপ্ত জল পান করুন। ২. একটি নির্দিষ্ট রুটিন মেনে চলুন- শৃঙ্খলাপরায়ণ জীবনযাপন কিন্তু আপানকে দীর্ঘদিন সুস্থ রাখতে পারে। তাই একটি নির্দিষ্ট রুটিন তৈরি করুন এবং সেটি মেনে চলুন। যথাসময়ে ঘুম থেকে উঠুন এবং রাতে যথা সময়ে ঘুমোতে যান। কাজের পাশাপাশি নির্দিষ্ট সময়ে বিশ্রাম করুন। ৩. একাকিত্ব কাটিয়ে তুলুন- এই প্যানডেমিকের সময়ে বেশি করে ধরা পড়ছে এই একাকিত্বের বিষয়। এটি অবসাদের পাশাপাশি একাধিক রোগকেও ডেকে নিয়ে আসে শরীরে। যা হৃদযন্ত্রের উপরে প্রভাব ফেলতে পারে। তাই বন্ধু, পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলুন। এই সময়ে বাইরে বেরোতে না পারলে নানা ভিডিও কল, অল্পবিস্তর সোশ্যাল মিডিয়া চ্যাটিংয়ে অংশ নিন। এতে মন ভালো থাকবে। ৪. ধূমপান ও মদ্যপান নিষিদ্ধ- নানা সংক্রমণ বাড়িয়ে তোলার পাশাপাশি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয় এই অভ্যাস। তাই শরীর ও হৃদযন্ত্রকে ভাল রাখতে মদ্যপান বা ধূমপান ছেড়ে দিন। ৫. ওজনের প্রতি নজর দিন- শরীর ও হৃদযন্ত্র ভাল রাখতে হলে ওজন এবং BMI রেকর্ডের প্রতি নজর রাখুন। এতে হৃদযন্ত্রের পাশাপাশি অন্যান্য রোগের সম্ভাবনাও কমে যায়। মাঝে মাঝেই নিজের ওজন মেপে নিন। প্রয়োজনে কোনও ডায়েটিসিয়ানের পরামর্শ নিন। ৬. নিয়মিত শরীরচর্চা- খালি হাতের ব্যায়াম, নিয়মিত শরীরচর্চা আপনার হৃদযন্ত্র ভাল রাখবে। প্রতি দিন কমপক্ষে ৩০ মিনিটের জন্য হাঁটা, অ্যারোবিক বা নাচের অনুশীলন করতেও পারেন। এতে শরীর ভাল থাকবে। ৭. কাজের মাঝে অল্প বিরতি নিন- টানা কাজ করবেন না। মাঝে মাঝে অল্প বিরতি নিন। এতে ক্লান্তি, অবসাদ একটু হলেও কমবে। এর জেরে আপনার হৃদযন্ত্রও ভালো থাকবে। ৮. প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন- সাধারণ কোনও উপসর্গকেও হেলাফেলা করবেন না। শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যথা বা অন্য কোনও সমস্যা হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। যাঁরা ৭০ বছরের উর্ধ্বে, তাঁরা বিশেষ ভাবে শরীরের যত্ন নিন। ৯. প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ওষুধ খান- যাঁরা কোনও হৃদরোগে ভুগছেন, ডায়াবেটিস, হাই কোলেস্টেরল বা উচ্চ রক্তচাপ রয়েছে, তাঁরা প্রেসক্রিপশন মেনে নিয়মিত ওষুধ খান। নিজের খেয়ালখুশি মতো দোকান থেকে ওষুধ কিনে খাবেন না।

Published by:Pooja Basu
First published: