• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • মৃত্যুমুখে যৌনকর্মীরা, নথি লাগবে না, বিনামূল্যে রেশন দিতেই হবে: সুপ্রিম কোর্ট

মৃত্যুমুখে যৌনকর্মীরা, নথি লাগবে না, বিনামূল্যে রেশন দিতেই হবে: সুপ্রিম কোর্ট

লকডাউনে কাজ হারিয়ে বিপদে দেশের লক্ষ লক্ষ যৌনকর্মী।

লকডাউনে কাজ হারিয়ে বিপদে দেশের লক্ষ লক্ষ যৌনকর্মী।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে প্রতিটি যৌনকর্মীকে বিনামূল্যে রেশন দিতে হবে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা আবহে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে ওদের। কবে খদ্দেরের দেখা মিলবে কেউ জানে না। সমস্ত সঞ্চয় শেষ করে যখন দেশের যৌনকর্মীরা জীবনমৃত্যুর সুতোয় ঝুলছেন, তখন আশার আলো দেখাল সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে প্রতিটি যৌনকর্মীকে বিনামূল্যে রেশন দিতে হবে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের। রেশন দেওয়ার সময় পরিচয়পত্র প্রদানের জন্যও তাঁদের চাপ দেওয়া চলবে না। ন্যাশানাল এইডস কন্ট্রোল অরগানইজেশন (ন্যাকো)স্বীকৃতি দিয়েছে এমন যে কোনও যে কোনও যৌনকর্মীই এই রেশন পাবেন।

    শীর্ষ আদালত এই কাজের জন্য চার সপ্তাহ সময় বেধে দিয়েছে মঙ্গলবার।রাজ্যগুলির উদ্দেশ্যে জানানো হয়েছে অবিলম্বে যৌনকর্মীদের মধ্যে শুকনো খাবার বিলি করতে হবে। চার সপ্তাহের মধ্যে কতজন খাবার পেলেন তার রিপোর্ট পাঠাতে হবে।

    জাস্টিস নাগেশ্বর রাও এবং অজয় রাস্তোগির বেঞ্চের তরফে এদিন বলা হয়, আপাতত শুকনো খাবার পাঠানো হোক। কিছুদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যৌনকর্মীদের হাতে হাতে আর্থিক সাহায্য দেওযা যায় কিনা। শীর্ষ আদালত খাবার বিলিবন্টনের বিষয়ে রাজ্যগুলিকে ন্যাকো-র সাহায্য নিতে বলেছে।

    এই বেঞ্চের তরফে এদিন বলা হয়, "আমরা জানি অনেক রাজ্যই এগিয়ে এসে যৌনকর্মীদের পাশে দাঁড়াচ্ছে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে সমস্যা হয়ে দাড়াচ্ছে পরিচয়পত্র। অনেকেরই রেশন কার্ড নেই। ফলে আপাতত যেমন রেশন দিতে হবে সকলকে। তেমনই হাতে হাতে তুলে দিতে হবে রেশনকার্ড। রাজ্যগুলিকে জানাতেও হবে কী ভাবে, কতজনকে নতুন রেশন কার্ড দেওয়া হয়েছে।

    শীর্ষ আদালতে এই শুনানিতে অ্যামিকাস কিউরি বা আদালত বন্ধু হিসেবে কাজ করছেন আইনজীবী পীযুষকুমার মিশ্র। তিনি এদিন বলেন, আমরা জোর দিচ্ছি যাতে রাজ্যগুলি দায়িত্ব নিয়ে সমস্ত যৌনকর্মীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলায় সে ব্যাপারে।

    উল্লেখ্য গত সপ্তাহেই শীর্ষ আদালত যৌনকর্মীদের অবস্থা বিষয়ে দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটির একটি আবেদনের ভিত্তিতে হওয়া একটি শুনানিতে এনজিওগুলির মত নেয়। দেখা যায়, অন্ধপ্রদেশ, কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ি, তেলেঙ্গনার যৌনকর্মীরা কাজ হারিয়ে, খিদের তাড়নায় ধুঁকছেন।

    Published by:Arka Deb
    First published: