corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা মোকাবিলায় পাড়া নজরদারি কমিটি গড়ছে বর্ধমান জেলা প্রশাসন

করোনা মোকাবিলায় পাড়া নজরদারি কমিটি গড়ছে বর্ধমান জেলা প্রশাসন
Representative Image

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, পাড়া নজরদারি কমিটিতে স্থানীয় ক্লাব,স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বা এলাকার অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের রাখা হবে। নজরদারি কমিটিকে আর্থিক সাহায্য, গাড়ি দেবে জেলা প্রশাসন। কমিটির সদস্যরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে নজরদারি চালাবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনা মোকাবিলায় বর্ধমান শহরে পাড়া নজরদারি কমিটি গড়ার সিদ্ধান্ত নিল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ এই শহরেই। বেশ কয়েকটি এলাকায় করোনার সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। সেই সঙ্গে এইসব এলাকায় প্রশাসনিক কাজকর্মে বেশকিছু ফাঁক ফোকর থেকে যাচ্ছে। তা নিয়ে ক্ষুব্ধ এলাকার বাসিন্দারা। সেই সব কাজ যথাযথভাবে হচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখবে এই কমিটি। প্রয়োজনে তারা প্রশাসনের সঙ্গে সম্পর্ক রেখে চলবে বলেও জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক বিজয় ভারতী জানান, বর্ধমান শহরে ওয়ার্ড কমিটির ধাঁচে পাড়া নজরদারি কমিটি গঠন করা হচ্ছে। বর্ধমান শহরের প্রায় সব এলাকাতেই করোনার সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। সেইসব এলাকায় কন্টেইনমেন্ট জোন গঠন করা হয়েছে। সেইসব কন্টেইনমেন্ট  জোনে লকডাউন ঠিকঠাকভাবে পালন করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠছে। অনেক ক্ষেত্রে আক্রান্ত ব্যক্তিকে করোনা হাসপাতাল বা সেফ হোমে রাখা হলেও তার বাড়ির অন্যান্য সদস্য বা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের পরীক্ষার কাজ যথাযথভাবে হচ্ছে না বা তাদের শারীরিক অবস্থার উপর সেই সেভাবে নজরদারির কাজে খামতি থেকে যাচ্ছে। সেই সব এলাকা নিয়মিত স্যানিটাইজ করা বা সেখানে কীটনাশক প্রয়োগ করার কাজও ঠিকঠাকভাবে হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠছে। সে সব ব্যাপারে তদারকি করবে এই পাড়া নজরদারি কমিটি।

আরও পড়ুন অবাক কাণ্ড! এই জেলায় ব্যাপক সংক্রমণ, তবে করোনামুক্ত ৩৫ গ্রাম পঞ্চায়েত

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, পাড়া নজরদারি কমিটিতে স্থানীয় ক্লাব,স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বা এলাকার অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের রাখা হবে। নজরদারি কমিটিকে আর্থিক সাহায্য, গাড়ি দেবে জেলা প্রশাসন। কমিটির সদস্যরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে নজরদারি চালাবে। প্রয়োজনে এলাকায় সচেতনতামূলক প্রচারও চালাবে এই কমিটির সদস্যরা। কোথাও স্বাস্থ্য দফতর বা প্রশাসনিক কাজে গাফিলতি দেখা দিলে তা জেলা প্রশাসনের নজরে আনবে এই কমিটি। খুব তাড়াতাড়ি কমিটি গঠন করার কাজ সম্পন্ন করা হবে বলে জেলা প্রশাসন জানিয়েছে। জেলাশাসক জানান, আপাতত বর্ধমান শহরে এই কমিটি গঠন করা হচ্ছে। কালনা, কাটোয়া, মেমারি পৌরসভার করোনা পরিস্থিতির ওপর নজর রাখা হচ্ছে। এখনই সেইসব পৌরসভা এলাকায় এই কমিটি গঠন করা হচ্ছে না।

Published by: Pooja Basu
First published: August 19, 2020, 5:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर