করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফুসফুসের অবস্থার হাল্কা উন্নতি, তবে এখনও ভেন্টিলেশনেই রয়েছেন এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যম

ফুসফুসের অবস্থার হাল্কা উন্নতি, তবে এখনও ভেন্টিলেশনেই রয়েছেন এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যম

আপাতত গায়কের অবস্থা অনেকটাই ভাল৷ তবে এখনও তিনি ভেন্টিলেশনেই রয়েছেন৷

  • Share this:

#চেন্নাই: ধীরেধীরে উন্নত হচ্ছে এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যমের শারীরিক অবস্থা৷ তিনি স্থিতিশীল রয়েছেন এবং চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন৷ জানিয়েছেন তাঁর ছেলে চরণ৷ বুধবার হাসপাতালের মেডিক্যাল টিমের সঙ্গে তাঁর কথা হয় এবং তারাই জানিয়েছেন যে বিশিষ্ট গায়কের অবস্থা এখন আগের থেকে অনেকটাই ভাল৷ এবারও বাবার শারীরিক অবস্থা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট করেছেন এস পি বালার ছেলে৷ তিনি বলেন যে, এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যমের ফুসফুসের অবস্থায় হাল্কা উন্নতি হয়েছে৷ সুস্থতার প্রথম ধাপ লক্ষ্য করা গিয়েছে এস পি বালাসুব্রহ্মণ্যমের ক্ষেত্রে৷ এই দেখেই মনে করা হচ্ছে যে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন কিছু দিনের মধ্যেই৷

এস পির ছেলে জানান যে তিনি হাসপাতালে গিয়ে দেখে এসেছেন তাঁকে৷ এস পি বালা অনেকক্ষণ জেগে ছিলেন এবং লিখে লিখে ছেলের সঙ্গে নিজের মনোভাব আদন প্রদান করেন৷ তিনি গান শুনছেন, গানের তালে আঙুল নাচাচ্ছেন এবং গাইবারও চেষ্টা করছেন৷ ওঁর শারীরিক উন্নতি দেখে আমার খুব স্বস্তি হচ্ছে৷ ভিডিওতে জানান চরণ৷

চেন্নাইয়ের MGM- এ ভর্তি রয়েছেন তিনি। গত ৫ অগাস্ট তাঁর করোনা ধরা পড়ে। কিন্তু ১৩ তারিখ রাত থেকে তাঁর শরীরের অবনতি ঘটতে থাকে। শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা । এর পরই তাঁকে হাসপাতালের আইসিইউতে তাঁকে স্থানান্তর করতে হয়। হাসপাতালের একটা স্পেশ্যাল মেডিক্যাল টিম তাঁর চিকিৎসা করছে।  আপাতত গায়কের অবস্থা অনেকটাই ভাল৷ তবে এখনও তিনি ভেন্টিলেশনেই রয়েছেন৷

দক্ষিণী ছবি থেকে বলিউড ৷ এস পি বালসুব্রহ্মণ্যমের গান সঙ্গীতপ্রেমীদের কাছে প্রথম থেকেই সমাদর পেয়েছে ৷ বলিউডের বেশ কিছু নায়ক তো তাঁদের জন্য বেছেই নিয়েছেন এস পি বালসুব্রহ্মণ্যমকে ৷ যার মধ্যে সলমন খান একেবারে ওপরের তালিকায় ৷ এসপির গাওয়া, 'মেরে জীবন সাথী', 'হাম আপকে হ্যায় কন', 'রূপ সুহানা লাগতা হ্যায়', 'পেহলা পেহলা পেয়ার হ্যায়', 'হাম বনে তুম বনে এক দুজে কে লিয়ে,'র মতো অসংখ্য গান রয়েছে, যা সর্বকালের সেরা হয়েই থেকে যাবে মানুষের মনে। সকলেই এখন এই গায়কের সুস্থতা কামনা করছেন।

Published by: Pooja Basu
First published: August 27, 2020, 8:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर