ভ্যাকসিন ঠিকভাবে কাজ করছে না! সিরাম ইনস্টিটিউটের ১০ লক্ষ জোজ ফেরাতে চাইল দক্ষিণ আফ্রিকা

ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের করোনা ভ্যাকসিন শুধু দেশে নয়, বিদেশেও পাঠানো হয়েছে৷

ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের করোনা ভ্যাকসিন শুধু দেশে নয়, বিদেশেও পাঠানো হয়েছে৷

  • Share this:

    #কেপ টাউন: এক সপ্তাহের মধ্যেই ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিড ভ্যাকসিন ফেরাতে চাইছে দক্ষিণ আফ্রিকা, এমনই তথ্য সামনে এনেছে এক সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থা৷ দেশের করোনা টিকাকরণ প্রকল্পে অ্যাস্ট্রাজেনকার (AstraZeneca) এই বিশেষ ভ্যাকসিন ব্যবহার আপাতত বন্ধ রাখতে চাইছে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার৷ দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন যে, সে দেশে যে ধরণের করোনার ভ্যারিয়েন্ট দেখা গিয়েছে তার সঙ্গে লড়তে খুব বেশি কাজে আসছে না সিরাম ইনস্টিটিউটের ভ্যাকসিন৷ মানবদেহে পরীক্ষা চালাকালীন দেখা গিয়েছে যে, দক্ষিণ আফ্রিকায় যে ধরণের করোনার প্রকোপ (501Y.V2 coronavirus variant) রয়েছে, তার সঙ্গে লড়তে যৎসামান্যই উপকারে আসছে অ্যাস্ট্রাজেনকার ভ্যাকসিন৷

    অ্যাস্ট্রাজেনকার পক্ষ থেকেও জানানো হয়েছে যে, দক্ষিণ আফ্রিকায় যে বিশেষ ধরণের করোনার বাড়বাড়ন্ত, তার বিরুদ্ধে খুব হাল্কা প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম তাদের ভ্যাকসিন৷ উইটওয়াটারস্র্যান্ডের সাউথ অ্যাফ্রিকান ইউনিভার্সিটি এবং অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির এক গবেষণা থেকে আসা তথ্য বিচার করে মত প্রকাশ করেছে অ্যাস্ট্রাজেনকা৷

    কিছুদিনের মধ্যে দেশে করোনা টিকাকরণ কর্মসূচী শুরু করতে চলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার৷ আপাতত স্থির করা হয়েছে যে, স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকাকরণের জন্য ব্যবহার করা হবে জনসন অ্যান্ড জনসনের ভ্যাকসিন৷ তবে সেটিই হবে সর্তশাপেক্ষে, গবেষণা করে৷

    অ্যাস্ট্রাজেনকা-অক্সফোর্ড করোনা ভ্যাকসিনকে আতপকালীন ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও৷ গত সপ্তাহে ১ লক্ষ কোভিড ভ্যাকসিন ডোজ পৌঁছেছে দক্ষিণ আফ্রিকায়৷ পরবর্তীতেও আরও ৫ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন পৌঁছবার কথা রয়েছে সেদেশে৷ তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার টিকাকরণ কর্মসূচীতে অ্যাস্ট্রাজেনকা ভ্যাকসিনের ওপর স্থগিতাদেশ দেওয়ায়, বাড়িত ডোজ সেখানে পাঠানো হবে কিনা, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা৷ এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি সিরাম ইনস্টিটিউট৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: