করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দারুণ খবর ! ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে করোনামুক্ত স্লোভেনিয়া

দারুণ খবর ! ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে করোনামুক্ত স্লোভেনিয়া
চতুর্থ দফার লকডাউন শেষ হওয়ার একদিন আগেই নয়া ঘোষণা ৷ Unlock 1.0, শুরু হল লকডাউন তুলে নেওয়ার প্রক্রিয়া ৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশিকা অনুযায়ী, দেশ জুড়ে ৩০ জুন পর্যন্ত চলবে লকডাউন, তবে তা শুধু কন্টেইনমেন্ট জোনের ক্ষেত্রেই জারি থাকবে ৷ দেশের বাকি অংশে ধীরে ধীরে তুলে নেওয়া হবে লকডাউন৷ Unlock প্রক্রিয়া চলবে তিন দফায় ৷

প্রধানমন্ত্রী জানেজ জানসা নিজেই এই খুশির খবর জানিয়েছেন পার্লামেন্টে ৷ ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে নিজেদের করোনামুক্ত ঘোষণা করেছে স্লোভেনিয়া ৷

  • Share this:

#জাগ্রেব: গোটা বিশ্বের কাছে মাথাব্যথার এখন একটাই নাম ৷ সেটা হল করোনা ভাইরাস ৷ এই মারণ ভাইরাসের তাণ্ডব চলছে সর্বত্র ৷ এশিয়া থেকে ইউরোপ, আমেরিকা থেকে ওশিয়ানিয়া ৷ সব জায়গার ছবিটাই এখন এক ৷ করোনা ভাইরাস নিঃসন্দেহে এ শতাব্দীর সবচেয়ে বড় দুর্যোগের নাম। কোনও যুদ্ধ বা পরমাণু হাতিয়ার নয়, একটা অজানা ভাইরাসেই গোটা পৃথিবী স্তব্ধ ৷ অনেক দেশই অবশ্য চেষ্টা করছে ধাপে ধাপে লকডাউন তুলে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার ৷ কিন্তু সংক্রমণের সংখ্যা যেভাবে প্রতিদিন বাড়ছে, তাতে স্বস্তিতে নেই বিশ্বের কোনও দেশই ৷

ইতিমধ্যেই বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা তিন লাখ ছাড়িয়েছে। আক্রান্ত ৪৫ লাখের বেশি। করোনা হয়তো এইডসের মতোই কোনওদিনই নির্মূল করা সম্ভব নয় ৷ এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থা হু ৷ কিন্তু এই সবের মধ্যেই আশার খবর শোনাচ্ছে ইউরোপের ছোট্ট দেশ স্লোভেনিয়া ৷ গত দু’মাস ধরে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের পর অবশেষে দেশ করোনামুক্ত বলে ঘোষণা স্লোভেনিয়া সরকারের ৷ প্রধানমন্ত্রী জানেজ জানসা নিজেই এই খুশির খবর জানিয়েছেন পার্লামেন্টে ৷ ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে নিজেদের করোনামুক্ত ঘোষণা করেছে স্লোভেনিয়া ৷ সীমান্তে কড়াকড়িও অনেকটাই শিথীল করা হচ্ছে ৷ প্রধানমন্ত্রী জানসা জানান, ‘‘স্লোভেনিয়া গত দু’মাস ধরে এই মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করেছে। আজ মহামারি মোকাবিলায় স্লোভেনিয়া ইউরোপের সেরা। আমরা এখন গর্ব করে বলতে পারি স্লোভেনিয়ায়  করোনা ভাইরাস মুক্ত।’’

গত ৪ মার্চ স্লোভেনিয়ায় প্রথম করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। মোট ১৪৬৪ জন আক্রান্ত হন কোভিডে। যাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১০৩ জনের ৷

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 15, 2020, 6:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर