corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনার সংক্রমণের কোপ, শহরের রাস্তায় গড়াবে না ইসকনের রথের চাকা, হতাশ ভক্তেরা

করোনার সংক্রমণের কোপ, শহরের রাস্তায় গড়াবে না ইসকনের রথের চাকা, হতাশ ভক্তেরা

স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং শহরবাসীর সুরক্ষার কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্দির কমিটি ।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনার কোপ । এবার আর শহরের রাস্তায় গড়াবে না ইসকনের রথের চাকা । হাজার হাজার ভক্তের সমাগমও আর দেখা যাবে না ।

শিলিগুড়িতে ইসকনের রথ মানেই উন্মাদনা ! বাইরে থেকেও আসেন ভক্তেরা । বিদেশী ভক্ত সমাগমও হয় । কিন্তু মারণ করোনাভাইরাসের সংক্রমণে সেই ছবি এবারেই দেখা যাবে না । ভিড়ের জন্য ফি বছর  রথের রশি টানার সুযোগই পেতেন না অনেক ভক্ত । দূর থেকেই প্রণাম সারতে হত । এবার সেখানে রথযাত্রাই হবে না । নিয়ম , নিষ্ঠা , আচার মেনে পুজো হবে, কিন্তু সবই ভক্তদের ছাড়া । মন্দির প্রাঙ্গনেই ঘুরবে রথের চাকা । থাকবেন মন্দিরের ৫০ জন আবাসিক ভক্ত ! মামার বাড়িও করা হয়েছে মন্দির চত্বরে । রীতি মেনে উলটো রথযাত্রাও হবে । কিন্তু বসবে না রথের মেলা ।

শহরবাসীর স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্দির কমিটি । ইসকনের জন সংযোগ আধিকারীক নামকৃষ্ণ দাস জানান,  এই প্রথম রথের চাকা রাস্তায় গড়াবে না । খারাপ লাগলেও কিছু করার উপায় নেই । রাস্তায় বের হলে ভিড় এড়ানো সম্ভব নয় । কিন্তু করোনা মোকাবিলায় জনসমাগম এড়ানোই একমাত্র পথ । এমনকী রথ পূর্ণিমার দিনে মন্দির চত্বরেও ভক্তদের সমাগম করতে দেওয়া হবে না । তিনি আরও জানান, আজ খোলার কথা থাকলেও মন্দিরের দরজা আপাতত খুলছে না । রথের দিন পর্যন্ত বন্ধ থাকবে দরজা । তারপর মন্দির কমিটি বৈঠক করে পরবর্তী দিনক্ষন চূড়ান্ত করবে ।

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের মন্দির খুলতে শুরু করেছে । আজও হাওড়ার বেলুড় মঠ, হুগলীর বক্রেশ্বরী মন্দির , বর্ধমানের সর্বমঙ্গলা মন্দির খুলেছে । কিন্তু বন্ধ থাকছে শিলিগুড়ির ইসকন মন্দির । যেদিন মন্দির খোলা হবে সেদিন থেকে কোভিড প্রোটোকল মেনেই সব হবে । মাস্ক বা ফেস কভার পড়ে আসা বাধ্যতামূলক । মন্দিরে প্রবেশের মুখেই থাকবে হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার । তাতে হাত ধুতে হবে । রাজ্যের নির্দেশিকা মেনেই এক সঙ্গে একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক ভক্ত পুজো দিতে পারবেন । এদিকে রথ না হওয়ায় মন খারাপ ভক্তদের । বিষন্ন মন দোকানিদেরও । যারা সপ্তাহব্যাপী রথ মেলায় নানান পসরা নিয়ে বসতেন ।

Partha Sarkar

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 15, 2020, 10:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर