করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা চিকিৎসায় চালু হচ্ছে স্যাটেলাইট হেলথ ফেসিলিটি, বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাতেও সরকারই ভরবে বিল

করোনা চিকিৎসায় চালু হচ্ছে স্যাটেলাইট হেলথ ফেসিলিটি, বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাতেও সরকারই ভরবে বিল

করোনা আক্রান্তদের নার্সিংহোমে রেখে চিকিৎসা করানো হলেও রোগী বা তার পরিবারকে ব্যয় বহন করতে হবে না।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: করোনা চিকিৎসায় পূর্ব বর্ধমান জেলায় স্যাটেলাইট হেলথ ফেসিলিটি পরিষেবা চালু হল। এর ফলে উপসর্গ কম বা একেবারেই উপসর্গ নেই এমন করোনা আক্রান্তদের সরাসরি কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য না পাঠিয়ে তাদের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল বা নার্সিংহোমে রেখে চিকিৎসা করানো হবে। কোন কোন বেসরকারি হাসপাতাল বা নার্সিংহোম এই পরিষেবা দিতে প্রস্তুত তার তালিকা তৈরি করছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর৷

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা পজিটিভ রোগীদের এতদিন দুর্গাপুরের করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছিল। কিন্তু দিন দিন ওই হাসপাতালে ওপর চাপ বাড়ছে। তাই উপসর্গ নেই বা খুব কম উপসর্গ রয়েছে এমন করোনা আক্রান্তদের সরাসরি কোভিড হাসপাতালে ভর্তি না করে নার্সিংহোমে রেখে চিকিৎসা করানোর নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। সেই নির্দেশ মেনে পূর্ব বর্ধমান জেলায় স্যাটেলাইট  হেলথ ফেসিলিটি চালু করা হচ্ছে।

পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, নার্সিংহোমগুলির সঙ্গে ইতিমধ্যেই জেলা স্বাস্থ্য দফতর যোগাযোগ করেছে। তাদেরকে আবেদন পত্র দেওয়া হচ্ছে। যেসব নার্সিংহোম পরিষেবা দিতে ইচ্ছুক তাদের আবেদনপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে। সেই আবেদনপত্র জমা পড়ার পর জেলা স্বাস্থ্য দফতর তার পরিকাঠামো খতিয়ে দেখছে। সেখানে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ভেন্টিলেটর, ডায়ালিসিস ও প্রয়োজনীয় সংখ্যক নার্স ডাক্তার স্বাস্থ্যকর্মী আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এরপরই সেই নার্সিংহোমকে স্যাটেলাইট হেলথ ফেসিলিটির আওতায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

এক্ষেত্রে করোনা আক্রান্তদের নার্সিংহোমে রেখে চিকিৎসা করানো হলেও রোগী বা তার পরিবারকে ব্যয় বহন করতে হবে না। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, করোনা আক্রান্তের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকার বহন করবে। নার্সিংহোম স্বাস্থ্য দফতরের কাছ থেকে খরচ পাবে। রোগী বা রোগীর আত্মীয়দের কাছ থেকে কোনও অর্থ দাবি করা যাবে না।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় ইতিমধ্যেই ১৪৬ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। আশপাশের জেলা পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, হুগলি, নদিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। তার ফলে এই জেলাতেও সংক্রমণ বাড়তে পারে এই আশঙ্কায় ইতিমধ্যেই বর্ধমান শহর লাগোয়া দু নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে বামচাঁদাইপুরে বেসরকারি হাসপাতালকে  কোভিড হাসপাতাল করা হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লে সবাইকে চিকিৎসা পরিষেবা আওতায় আনতেই এই স্যাটেলাইট হেলথ ফেসিলিটির উদ্যোগ বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Debalina Datta
First published: June 19, 2020, 6:48 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर