করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্কুল মাইনেতে জুড়ছে স্যানিটাইজেশন ফি! আন্দোলনের মধ্যেই নয়া সিদ্ধান্ত, চলছে আলোচনা

স্কুল মাইনেতে জুড়ছে স্যানিটাইজেশন ফি! আন্দোলনের মধ্যেই নয়া সিদ্ধান্ত, চলছে আলোচনা
ফাইল ছবি

স্যানিটাইজেশন ফি যুক্ত হতে চলেছে মাইনে দেওয়ার ক্ষেত্রে। তবে কত টাকা এই খাতে নেওয়া হবে, সে বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

  • Share this:

#কলকাতা: একদিকে যখন শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন স্কুলে ফি কমানোর দাবি নিয়ে অভিভাবকদের আন্দোলন চলছে। তখন স্কুলের মাইনেতে স্যানিটাইজেশন ফি অন্তর্ভুক্ত করার চিন্তাভাবনা করছে কলকাতার কয়েকটি বেসরকারি স্কুল।

মূলত বিভিন্ন খাতে অভিভাবকদের মাইনে বাবদ টাকা দিতে হয় প্রত্যেক মাসে। লাইব্রেরী ফি,ল্যাবরেটরী ফি, টিউশন ফি, এক্সট্রা কারিক্যুলার অ্যাক্টিভিটি ফি-সহ একাধিক খাতে টাকা দেওয়ার পাশাপাশি এবার এই স্যানিটাইজেশন ফি যুক্ত হতে চলেছে মাইনে দেওয়ার ক্ষেত্রে। তবে কত টাকা এই খাতে নেওয়া হবে, সে বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। সূত্রের খবর, কলকাতার নামকরা কয়েকটি বেসরকারি স্কুল ইতিমধ্যেই এই বিষয় নিয়ে আলোচনা শুরু করেছে।

এ প্রসঙ্গে লা মার্টিনিয়ার স্কুলের সচিব বা সেক্রেটারি সুপ্রিয় ধর বলেন, "স্কুল খুললে স্যানিটাইজেশন বাবদ প্রচুর খরচ হবে স্কুলগুলিতে। সে ক্ষেত্রে এত বিপুল টাকা স্কুল কোথা থেকে পাবে? তাই এই ধরনের আলোচনা হয়েছে। তবে কত টাকা করে নেওয়া হবে সে বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।"

কেন্দ্র-রাজ্য উভয়ই আগামী ৩১ শে জুলাই পর্যন্ত স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতি দেখে আগামী দিনে স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় কবে খুলবে, সেই বিষয়ে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত হবে। যদিও অতিমারী পরবর্তী পরিস্থিতিতে কীভাবে স্কুল খুলবে, তার জন্য ইতিমধ্যেই এনসিইআরটি বা ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর এডুকেশনাল রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিং-কে দায়িত্ব দিয়েছে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক। মূলত কীভাবে স্কুল খোলা হবে,  কতজন পড়ুয়া স্কুলে আসবে, কোন কোন ক্লাসের আগে পঠন-পাঠন চালু হবে-সেই বিষয়ে বিস্তারিত গাইড লাইন তৈরি করছে এনসিইআরটি।

তবে করোনাভাইরাস পরবর্তী পরিস্থিতিতে প্রত্যেকটি স্কুলে স্যানিটাইজেশন বাধ্যতামূলক হতে চলেছে সে বিষয়ে কার্যত নিশ্চিত। সে ক্ষেত্রে স্কুলগুলিকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হলে একাধিক বিধি-নিষেধ জারি করতে হবে। বিশেষত স্কুলে মাস্ক পড়া, ছাত্র-ছাত্রীদের স্যানিটাইজ করা-সহ একাধিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্কুলের পঠন পাঠন শুরু করতে হবে।

তার জেরে স্কুলগুলিতে একপ্রকার রক্ষণাবেক্ষণের খরচ বাড়বে সে বিষয়ে নিশ্চিত স্কুল কর্তৃপক্ষ। বিশেষত বেসরকারি স্কুলগুলোতে আরও খরচ বাড়তে চলেছে। কারণ স্কুলগুলির ক্লাসরুম থেকে শুরু করে বিভিন্ন জায়গায় সব সময় স্যানিটাইজ করতে হবে। সে ক্ষেত্রে একটা বিপুল পরিমাণ খরচ হবে এই খাতে। আর তাই এবার স্যানিটাইজেশন ফি নেওয়ার ক্ষেত্রে এই ভাবনা শুরু।

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by: Shubhagata Dey
First published: July 4, 2020, 10:04 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर