corona virus btn
corona virus btn
Loading

ফ্রিজের মাইনাস ৮০ ডিগ্রিতে রাখা হবে নমুনা! করোনা ধরতে এবার পুল টেস্ট শুরু বর্ধমানে

ফ্রিজের মাইনাস ৮০ ডিগ্রিতে রাখা হবে নমুনা! করোনা ধরতে এবার পুল টেস্ট শুরু বর্ধমানে

সংগ্রহ করার নমুনা চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে পরীক্ষা করা জরুরি। নচেৎ সেই নমুনা নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। নমুনা নষ্ট হয়ে গেলে আবার নতুন করে নমুনা সংগ্রহের ঝক্কি থেকেই যায় ।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: করোনা চিহ্নিত করতে এবার এক সঙ্গে অনেকের নমুনা পরীক্ষা অর্থাৎ পুল টেস্টের ওপর জোর দিচ্ছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। এই জেলায় এখন প্রতিদিন  গড়ে ছশোরও বেশি নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। কিন্তু সেই সংখ্যক নমুনা প্রতিদিন পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। তার জেরে বকেয়া নমুনার সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সেই সমস্যা মেটাতে পুল টেস্টের ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। পূর্ব বর্ধমান জেলায় এখন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কালনা ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাল সহ আটটি এলাকায় বাসিন্দাদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে সংগ্রহ করা নমুনা তা পাঠানো হচ্ছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ, আর জি কর হাসপাতাল ও দুর্গাপুরের সনকা হাসপাতালে। আর জি কর হাসপাতালের উপর অন্যান্য জেলারও চাপ রয়েছে। সনকা হাসপাতালের পরীক্ষার পরিকাঠামো তুলনামূলক কম। বর্ধমান মেডিকেল কলেজে পরীক্ষা বাড়লেও বকেয়া থেকেই যাচ্ছে। পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, সংগ্রহ করার নমুনা  চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে পরীক্ষা করা জরুরি। নচেৎ সেই নমুনা নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। নমুনা নষ্ট হয়ে গেলে আবার নতুন করে নমুনা সংগ্রহের ঝক্কি থেকেই যাচ্ছে। তাই নমুনা নষ্ট হওয়া আটকাতে আমরা নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্রগুলিতে রেফ্রিজারেটরের ব্যবস্থা করছি। সেখানে মাইনাস আশি  ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় নমুনা সংরক্ষণ করা হবে। সেই সঙ্গে যাতে এক সঙ্গে অনেকের পরীক্ষা করা যায় সেই কর্মসূচিও নেওয়া হচ্ছে। প্রথমে আট-দশ জনের নমুনা একসঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা করার কথা ভাবা হয়েছিল। দিন দিন বাইরের রাজ্য থেকে অনেক বেশি বাসিন্দা আসছেন। আগামী সাত দিনে আরও কয়েক হাজার বাসিন্দা বিশেষ ট্রেনে বিভিন্ন রাজ্য থেকে আসবেন। আমরা এখন পঁচিশ জনের নমুনা এক সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষার পরিকল্পনা নিয়েছি। এতে কম সময়ে কম খরচে এক সঙ্গে অনেকের পরীক্ষা করা যাবে। রিপোর্ট নেগেটিভ এলে এক সঙ্গে পঁচিশ জনই করোনা মুক্ত বলে নিশ্চিত হওয়া যাবে। রিপোর্ট পজিটিভ হলে তখন আলাদা আলাদাভাবে পরীক্ষা করে আক্রান্তদের চিহ্নিত করা হবে।

Published by: Simli Raha
First published: May 23, 2020, 11:00 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर