Salman Khan : ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিলেন সলমন খান, নিজেই জানালেন ট্যুইটে

Salman Khan : ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিলেন সলমন খান, নিজেই জানালেন ট্যুইটে

টিকা পেলেন ভাইজান Photo-Instagram

কোভিড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ প্রাপ্ত তারকাদের মধ্যে সলমন খান সর্বশেষতম বলিউড সেলিব্রিটি। এর আগে মঙ্গলবার অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার একটি ছবি শেয়ার করেন।

  • Share this:

    মুম্বই: করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে দেশে। মহারাষ্ট্রের অবস্থা রীতিমতো উদ্বেগজনক। তাই সুরক্ষিত থাকতে একে একে বলিউড তারকারাও নিয়ে নিচ্ছেন তাঁদের ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ। মঙ্গলবার নিয়েছিলেন সঞ্জুবাবা। এরপর বুধবার করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজটি নিয়ে নিলেন 'ভাইজান' সলমন খান।

    বুধবার একটি ট্যুইট করে তাঁর অনুরাগীদের এই খবর জানিয়েছেন সলমন নিজেই। সংক্ষিপ্ত ট্যুইটে তিনি জানান, "আমি করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের প্রথম শটটি পেয়েছি।" বুধবার সকালে মুম্বাইয়ের বান্দ্রার লীলাবতী হাসপাতালে সলমন খানের প্রবেশের ছবি তোলেন সেখানে উপস্থিত চিত্র সাংবাদিকরা। ছবিতে তাঁকে সাদামাটা পোশাক ও মাস্ক পরে থাকতে দেখা যায়। এই ছবি প্রকাশ্যে আসতেই ফ্যানেদের অনেকেই কৌতূহলী হয়ে পড়েন। অনেকে আবার তাঁর স্বাস্থ্যের কুশল জানতে চান। এরপরেই একটি ট্যুইটের মাধ্যমে অনুরাগীদের আস্বস্ত করেন সলমন। ট্যুইটে জানান তাঁর টিকাকরণের খবর।

    সলমন খানের ট্যুইটে ফ্যানেরা যেমন খুশি হয়েছেন। তেমনই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ঋত্বিক রোশন, অক্ষয় কুমারের মতো সতীর্থরা। ভালোবাসার ইমোজি দিয়েছেন ঋত্বিক। আর অক্ষয় কুমার অবশ্য মজাদার কমেন্ট করে লিখেছেন, "হ্যাঁ, বুড়োদের তো আগেই দিচ্ছে।"

    কোভিড ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ প্রাপ্ত তারকাদের মধ্যে সলমন খান সর্বশেষতম বলিউড সেলিব্রিটি। এর আগে মঙ্গলবার অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার একটি ছবি শেয়ার করেন। ট্যুইট করে তিনি লেখেন, "বিকেসির ভ্যাকসিন সেন্টারে আজ আমি আমার প্রথম ভ্যাকসিনের ডোজটি পেয়েছি। আমি এমন একটি দুর্দান্ত কাজ করার জন্য এখানকার চিকিৎসক ও তার পুরো টিমকে অভিনন্দন জানাতে চাই! আমি টিকাকরণ অভিযানে কঠোর পরিশ্রমের জন্য তাঁদের সকলকে আমার ভালবাসা এবং শ্রদ্ধা জানাই। হিন্দ!" এই মাসের শুরুতেই কোভিড ভ্যাকসিন নিয়েছেন সইফ আলী খানও। টিকা নিয়েছেন ধর্মেন্দ্র, নাগার্জুন, শর্মিলা ঠাকুর, হেমামালিনী ও জিতেন্দ্রও।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: