corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা লড়াইয়ের যোদ্ধা স্বাস্থ্যকর্মীদের রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতাল দিচ্ছে অতিরিক্ত ভাতা

করোনা লড়াইয়ের যোদ্ধা স্বাস্থ্যকর্মীদের রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতাল দিচ্ছে অতিরিক্ত ভাতা

একমাসের অতিরিক্ত সিটিসি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে

  • Share this:

#‌নয়া দিল্লি:‌ শিল্পপতি মুকেশ আম্বানির নেতৃত্বে চলা জনদরদি উদ্যোগের একটি শাখা, যে স্বাস্থ্য কর্মীরা COVID-19 মোকাবিলায় সামনে থেকে লড়াই করছেন, তাঁদের অতিরিক্ত বেতন ও বিশেষ কিছু সুবিধা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

মুম্বইয়ের স্যার এইচ এন রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালের কর্মীরা COVID-19–এর বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন। তাঁদের একমাসের অতিরিক্ত সিটিসি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একসঙ্গে সেভেন হিলস হাসপাতালের প্রথম সারির কর্মী, এমার্জেন্সি রুম ও দুটি আইসোলেশন রুমে কর্মরতরা বেতনের বাইরে বেশ কিছু সুবিধা পাবেন বলে জানানো হয়েছে।

স্যার এইচ এন রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালের চিফ এক্সিকিউটিভ তরং জ্ঞানচন্দানি লিখেছেন, ‘‌আমরা RFH টিমের কাছে কৃতজ্ঞ ও তাঁদের ধন্যবাদ জানাই। তাঁরা সামনে থেকে

COVID-19–এর বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। এই সংকটের সময়ে তাঁরা যে ধৈর্য, একাগ্রতা ও মনযোগ দেখিয়েছেন, তাতে আমরা গর্বিত। বিশেষত ধন্যবাদ জানাতেই হয় সেভেন হিলসের দলটিকে যাঁরা সামনে থেকে এই লড়াই লড়ছেন। এই লাগাতার লড়াইয়ের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে তাঁদের সম্মাননা প্রদান করা হচ্ছে।’‌

এই সংকটের সময়ে বাড়ির নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস সংগ্রহ করার অসুবিধার কথা মাথায় রেখে কর্মীদের একটি গ্রোসারি ব্যাগও দেওয়া হয়েছে। যাঁরা হোস্টেলে থাকছেন না এবং হাসপাতালে এসে কাজ করছেন, তাঁদের কাজে লাগবে এটি।

তিনি আরও লিখেছেন, ‘‌যাঁরা সামনে থেকে লড়াই করছেন, ইমার্জেন্সি রুমে কাজ করছেন এবং সেই সমস্ত জায়গায় যাচ্ছেন যেখানে ঝুঁকি রয়েছে, তাঁদের প্রয়োজনীয় পিপিই দেওয়ার বিষয়টি আমরা নিশ্চিত করেছি। এছাড়াও যাঁরা RFH–এ রোজ আসছেন এবং তাঁদের বাস সার্ভিস দেওয়া হচ্ছে, সঙ্গে প্রয়োজনীয় জল, বিস্কুট মাস্ক দেওয়া হচ্ছে।’‌ এই সময়ে RFH কর্মীদের বিনামূল্যে খাদ্য সরবরাহও করা হচ্ছে।

তিনি কর্মীদের বলেছেন, ‘‌এছাড়া যদি আপনাদের পরিবারের কেউ করোনা আক্রান্ত হন বা কোনও রকম চিকিৎসা সাহায্য তাঁদের প্রয়োজন হয়, তাহলে রিলায়েন্স ফাউন্ডেসনের নিয়ন্ত্রণে থাকা RFH, RIL–এর সহযোগিতা নিয়ে সমস্ত রকম সাহায্য করা হবে। চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে ও এই সংকটের সময়ে চিকিৎসার সমস্ত খরচও বহন করা হবে।’‌

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: April 14, 2020, 12:33 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर