corona virus btn
corona virus btn
Loading

ঘরের ছেলে ঘরে ফিরল, স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন উত্তরের বাবা-মায়েরা

ঘরের ছেলে ঘরে ফিরল, স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন উত্তরের বাবা-মায়েরা
কোটা থেকে ছাত্রদের নিয়ে রায়গঞ্জ ফিরল এই বাসগুলি।

গতকাল গভীর রাতে ছাত্রসমেত বাসটি রায়গঞ্জে এসে পৌছায়। রায়গঞ্জ পুরসভা ও জেলা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে ফিরে আসা ওই পড়ুয়াদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার পরে পড়ুয়াদের অবিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: রাজ্য সরকারের উদ্যোগে রাজস্থানে কোটায় আটকে থাকা ৭৪ জন পড়ুয়াকে বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়া হল। সন্তানকে কাছে পেয়ে খুশি অবিভাবকরা। গতকাল গভীর রাতে ছাত্রসমেত বাসটি রায়গঞ্জে এসে পৌছায়। রায়গঞ্জ পুরসভা ও জেলা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে ফিরে আসা ওই পড়ুয়াদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার পরে পড়ুয়াদের অবিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

উত্তর দিনাজপুর জেলার ৬৪ জন পড়ুয়া রাজস্থানের কোটাতে উচ্চ শিক্ষা নিতে গিয়ে লকডাউনের কারনে আটকে গিয়েছিল। করোনা ভাইরাস রুখতে দেশ জুড়ে লকডাউন শুরু হয়। এই লকডাউনের ফলে এই জেলার ৬৪ জন পড়ুয়া রাজস্থানের কোটাতে আটকে পরে। অভিভাবকরা বারংবার রাজ্য সরকারের কাছে তাঁদের ছেলেদের বাড়ি ফেরার জন্য আবেদন জানাতে থাকেন। তাঁদের আবেদনকে সাড়া দিয়ে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। গত মাসের ২৯ তারিখে রাজস্থানের কোটার আটকে পড়া ছাত্রদের নিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল।এর মধ্যে উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়ি হয়ে উত্তর, দক্ষিন এবং জেলার পড়ুয়াদের নিয়ে আসে।রায়গঞ্জ, কালিয়াগঞ্জ-সহ আশেপাশের ৩৫ জন পড়ুয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয় রায়গঞ্জ শিলিগুড়ি মোড়ে সুরেন্দ্রনাথ কলেজে।

বেশি রাতে বাসগুলি রায়গঞ্জে পৌছায়। সেখানে তাঁদের নামিয়েই স্বাস্থ্যপরীক্ষা করানো হয়। সেখানে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তাদেরকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় জেলা প্রশাসন। রায়গঞ্জ পুরসভার পৌরপতি সন্দীপ বিশ্বাস জানিয়েছেন, এখানে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এখন থেকে তারা ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবে। পৌরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রতিদিন তাদের বাড়িতে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করবে।

এদিন যখন ছাত্রসমেত বাসটি রায়গঞ্জে আসে, পৌরপিতা ছাড়াও রায়গঞ্জ মহকুমা শাসক অর্ঘ্য ঘোষ এবং রায়গঞ্জ থানা পুলিশের কর্তারা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন।

First published: May 3, 2020, 12:30 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर