যাত্রী স্বাচ্ছন্দ মাথায় রেখে রিটায়ারিং রুম খোলার সিদ্ধান্ত রেলের

অতিমারি আবহে গত প্রায় এক বছর যাবৎ বন্ধ রয়েছে রেলওয়ে স্টেশনের অবসর কক্ষগুলি।

অতিমারি আবহে গত প্রায় এক বছর যাবৎ বন্ধ রয়েছে রেলওয়ে স্টেশনের অবসর কক্ষগুলি।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি  : অতিমারি আবহে গত প্রায় এক বছর যাবৎ বন্ধ রয়েছে রেলওয়ে স্টেশনের অবসর কক্ষগুলি। ট্রেন চালু হয়ে গেলেও রিটায়ারিং রুমগুলি (Retiring room) একটিও খোলা হয়নি এখনও। ফলে তীব্র ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হচ্ছে বিশেষত দূরপাল্লার ট্রেনের যাত্রীদের। স্টেশনগুলিতে ভীড়ও বাড়ছে।

    তাই যাত্রীদের সুবিধার্থের কথা মাথায় রেখেই নয়া নির্দেশিকা জারি করল রেল। এবার জোনাল রেলওয়েগুলিকে স্টেশনের রিটায়ারিং রুম-গুলি চালু করার সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দিল কর্তৃপক্ষ। তবে সেক্ষেত্রে এলাকার পরিস্থিতি বিচার করেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে সংশ্লিষ্ট জোনের কর্তৃপক্ষকে। মানতে হবে কোভিড সংক্রান্ত যাবতীয় সরকারি নির্দেশিকা।

    একটি সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জোনাল রেলওয়েগুলিকে এই মর্মে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় রেল কর্তৃপক্ষ (Indian Railway)। ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কেটারিং এন্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশন ( Indian Railway Catering and Tourism Corporation -IRCTC)-এর  অধীন রিটায়ারিং রুম এবং রেল যাত্রী নিবাসগুলি পুনরায় ব্যবহারযোগ্য করে তোলার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয় গিয়েছে। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই গ্রিন সিগন্যাল দিয়েছে রেল বোর্ড।

    প্রসঙ্গত, ২০২০ এর মার্চ মাসে লকডাউন চালু হওয়ার পর বন্ধ হয় যায় যাবতীয় পরিষেবাগুলি। বড় স্টেশনগুলির শীতাতপনিয়ন্ত্রিত ডরমেটরি থেকে শুরু করে যাত্রীদের সাধারণ বিশ্রাম কক্ষ বন্ধ করে দেওয়া হয় সবই। লকডাউনের পর পর্যায়ক্রমে মেইল, এক্সপ্রেস ও পাসেঞ্জার ট্রেন চালু হলেও বন্ধই ছিল রিটায়ারিং রুমগুলি। এলাকার পরিস্থিতি বিচার করে সেগুলি খুলে দেওয়া হলে আগামী গরমে যারপরনাই সুবিধে হবে যাত্রীদের। শুধু মেনে চলতে হবে কোভিড বিধি।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: