corona virus btn
corona virus btn
Loading

উচ্চ মাধ্যমিকের জন্য স্কুল থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার সরাচ্ছে জেলা প্রশাসন

উচ্চ মাধ্যমিকের জন্য স্কুল থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার সরাচ্ছে জেলা প্রশাসন
স্কুলেই কোয়ারেন্টাইন হয়েছে পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য।

অতিরিক্ত জেলাশাসক অরিন্দম নিয়োগী জানান, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই প্রায় .তিনশোটি স্কুল থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার উঠে যাবে।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য স্কুল থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। পূর্ব বর্ধমান জেলায় ছাব্বিশটি স্কুল থেকে সরছে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার।  পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, আগামী তিন দিনের মধ্যে ওই স্কুল থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। তাঁদের অন্যত্র সরানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তিনদিনের মধ্যে স্কুল গুলি পরিষ্কার করে জীবাণুমুক্ত করে দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় বাইরের রাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরা অব্যাহত রয়েছে। প্রতিদিনই শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে বাইরের রাজ্যগুলি থেকে হাজারে হাজারে বাসিন্দা জেলায় ফিরছেন। তার মধ্যে ব্যাপকভাবে করোনা আক্রান্ত পাঁচ রাজ্য গুজরাট মহারাষ্ট্র দিল্লি মধ্যপ্রদেশ ও তামিলনাড়ু থেকে যারা আসছেন তাদের প্রত্যেককেই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ঘরের কাছে রাখতে গ্রাম সংলগ্ন স্কুলগুলিকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে। পূর্ব বর্ধমান জেলায় সাড়ে নশোর কাছাকাছি স্কুলে কোয়ারান্টিন সেন্টার রয়েছে।

জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, শিক্ষা দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করে দেখা গিয়েছে এর মধ্যে ২৬টি স্কুলে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হবে ।তাই সেই ২৬স্কুল থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। সেই স্কুলগুলি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে জীবাণুমুক্ত করার পর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়ার উপযুক্ত করে গড়ে তোলা হচ্ছে।

অতিরিক্ত জেলাশাসক অরিন্দম নিয়োগী জানান, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই প্রায় .তিনশোটি স্কুল থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার উঠে যাবে। কারণ ওই স্কুলগুলিতে যারা ছিলেন তাদের কোয়ারান্টিনে থাকার চোদ্দ দিনের মেয়াদ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে। কোয়ারেন্টাইন সম্পূর্ণ হয়ে গেলেই সব বাসিন্দাদের বাড়ি পাঠিয়ে স্কুল গুলিকে পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত করে দেওয়া হবে।

জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, বাইরের রাজ্য থেকে আসা শ্রমিকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। স্টেশনে আসামাত্র থার্মাল গান দিয়ে প্রত্যেকের দেহের তাপমাত্রা মাপা হচ্ছে। উপসর্গ নেই এমন বাসিন্দাদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। উপসর্গ রয়েছে এমন পুরুষ মহিলাদের চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেখানে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হচ্ছে। এখন প্রতিদিন গড়ে সাড়ে ৩০০ করে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করার কাজ চলছে বলে স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন।

Published by: Arka Deb
First published: June 10, 2020, 3:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर