COVID19: ব্যবহৃত PPE, গ্লাভস জমে রাস্তায়, সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কায় উদ্বেগ কালনায়

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতি সাবধানে পিপিই কিট সহ করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার কাজে ব্যবহৃত সামগ্রী নষ্ট করা উচিত। প্রকাশ্য স্থানে তা কখনওই ফেলে দেওয়া উচিত নয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতি সাবধানে পিপিই কিট সহ করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার কাজে ব্যবহৃত সামগ্রী নষ্ট করা উচিত। প্রকাশ্য স্থানে তা কখনওই ফেলে দেওয়া উচিত নয়।

  • Share this:

    #কালনা: রাস্তার পাশে পড়ে রয়েছে পিপিই কিট, ব্যবহৃত গ্লাভস! এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আতঙ্কিত কালনা শহরের বাসিন্দারা। এগুলি থেকে এলাকায় সংক্রমণ ছড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সকলেই। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এইসব ব্যবহৃত সামগ্রী খুব সাবধানে লোকালয় থেকে দূরে নষ্ট করা জরুরি। নচেৎ তা থেকে সংক্রমণ ছড়াতে পারে। এলাকায় যাতে এভাবে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার কাজে ব্যবহৃত সামগ্রী ফেলা না হয় তা দেখা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ।

    পূর্ব বর্ধমান জেলার অন্যান্য অংশের মতো সংক্রমণ ব্যাপক আকার ধারণ করেছে গঙ্গাপাড়ের মন্দির শহর কালনাতেও। কালনা পুরসভা ও পাশের গ্রামীণ এলাকায় প্রতিদিনই বহু মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। কালনা মহকুমা হাসপাতালে করোনার বেড খালি নেই। আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য পুরাতন বাস স্ট্যান্ডের কাছে উত্তরণ লজে সেফ হোম চালু করেছে কালনা পৌরসভা। সেখানে ৩০ টি শয্যা ব্যবস্থা করা হয়েছে। ন’ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন সেখানে। সেই সেফ হোমের কাছেই রাস্তার ওপর নর্দমার ধারে পাহাড় হয়ে পড়ে রয়েছে পিপিই কিট গ্লাভস মাস্ক সহ চিকিৎসায় ব্যবহৃত নানান সরঞ্জাম।

    আরও পড়ুন COVID19 centre: গোয়াল ঘর যখন করোনা সেন্টার, গোমূত্র ও দুধ দিয়ে চলছে চিকিৎসা

    বাসিন্দারা বলছেন, যেহেতু সেফ হোমের পাশেই এই সব আবর্জনা পড়ে রয়েছে তাই তা সেখানে থাকা করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার কাজে ব্যবহৃত হয়েছিল বলেই মনে করা হচ্ছে। জনবহুল এলাকায় এই সব সামগ্রী পড়ে থাকায় এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তাঁরা বলছেন, এই ব্যবহৃত পিপিই কিট, গ্লাভস সহ চিকিৎসায় ব্যবহৃত নানান সামগ্রী থেকে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে। তাই তা অবিলম্বে সরানোর দাবিতে সরব হন বাসিন্দারা। দ্রুত সেসব সরানোর পাশাপাশি ভবিষ্যতে যাতে আর কখনও রাস্তার ওপর প্রকাশ্য স্থানে এই সব সামগ্রী ফেলা না হয় তা নিশ্চিত করতে পুরসভা কর্তৃপক্ষের গোচরে বিষয়টি এনেছে তারা।

    বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতি সাবধানে পিপিই কিট সহ করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার কাজে ব্যবহৃত সামগ্রী নষ্ট করা উচিত। প্রকাশ্য স্থানে তা কখনওই ফেলে দেওয়া উচিত নয়। কারণ তার থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে যাবার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। ভবিষ্যতে যাতে এই সব সামগ্রী এভাবে ফেলা না হয় তা দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে কালনা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ।

    Published by:Pooja Basu
    First published: