• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • করোনার ভ্যাকসিন এলেই ঘরে ঘরে পৌঁছে যাবে, প্রস্তুতি চলছে: প্রধানমন্ত্রী

করোনার ভ্যাকসিন এলেই ঘরে ঘরে পৌঁছে যাবে, প্রস্তুতি চলছে: প্রধানমন্ত্রী

সোমবার সেই তিনটি প্রতিষেধকগুলির উপর কিরকম কাজ চলছে তা সশরীরে খতিয়ে দেখতে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ সেকথাও তিনি এদিন জানান ৷ আমেদাবাদের জাইডাস ক্যাডিলার ল্যাবে ভ্যাকসিনের কাজ কর্ম খতিয়ে দেখে প্রধানমন্ত্রী গিয়েছিলেন কোভ্যাক্সিন ভ্যাকসিনের কাজ দেখতে হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেকের দফতরে ৷ শেষে যান পুনের সিরাম ইনস্টিটিউট ৷ এদেশে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে মিলে এদেশে অক্সফোর্ডের গবেষণা দলের আবিষ্কৃত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন তৈরি করছে সিরাম ইনস্টিটিউট ৷

সোমবার সেই তিনটি প্রতিষেধকগুলির উপর কিরকম কাজ চলছে তা সশরীরে খতিয়ে দেখতে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ সেকথাও তিনি এদিন জানান ৷ আমেদাবাদের জাইডাস ক্যাডিলার ল্যাবে ভ্যাকসিনের কাজ কর্ম খতিয়ে দেখে প্রধানমন্ত্রী গিয়েছিলেন কোভ্যাক্সিন ভ্যাকসিনের কাজ দেখতে হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেকের দফতরে ৷ শেষে যান পুনের সিরাম ইনস্টিটিউট ৷ এদেশে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে মিলে এদেশে অক্সফোর্ডের গবেষণা দলের আবিষ্কৃত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন তৈরি করছে সিরাম ইনস্টিটিউট ৷

প্রধানমন্ত্রীর বার্তা, ‘‘করোনা সতর্কতায় কোনও ঢিলেমি দেওয়া যাবে না ৷ ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত প্রত্যেককে সতর্ক থাকতে হবে ৷ লকডাউন উঠে গেলেও দেশে করোনার প্রভাব এখনও আছে ৷’’

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে উৎসবের মরশুমে ঢাকে কাঠি পড়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে নবরাত্রি। দুর্গাপুজো শুরু হবে আর ক’দিন পরেই ৷ উৎসবের মরশুমে দেশের করোনা পরিস্থিতি কেমন হবে, তা নিয়ে আশঙ্কায় প্রত্যেক মানুষই ৷ আপাতত দেশে সংক্রমণের গ্রাফ নিম্নমুখী ৷ মঙ্গলবারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ৪৬,৭৯০ জন সংক্রমিত হয়েছেন ৷ যা গত তিন মাসে দৈনিক সংক্রমণের নিরিখে সর্বনিম্ন ৷  তারইমধ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছ'টা থেকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। করোনা কালে জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর এটা ছিল সপ্তম ভাষণ। দেশবাসীর উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর বার্তা, যতদিন ওষুধ আসছে না, ততদিন পর্যন্ত কোনও ঢিলেমি দেওয়া যাবে না ৷

    এদিন প্রধানমন্ত্রী জানান,  ‘‘করোনা সতর্কতায় কোনও ঢিলেমি দেওয়া যাবে না ৷ ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত প্রত্যেককে সতর্ক থাকতে হবে ৷ লকডাউন উঠে গেলেও দেশে করোনার প্রভাব এখনও আছে ৷ করোনাকে তাই অবহেলা করলে চলবে না ৷ উৎসবের সময়ে আরও সতর্ক থাকতে হবে ৷ করোনায় বিপদ নেই ভাববেন না ৷ বহু মানুষ করোনা নিয়ে সতর্ক নন ৷ অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না ৷ স্বাস্থ্যবিধি না মেনে পরিবারের বিপদ ডাকছেন ৷  উৎসবের সময় বাজারে ভিড় লক্ষ করা যাচ্ছে। কিন্তু আমাদের ভুললে চলবে না যে লকডাউন চলে গেলেও ভাইরাস যায়নি। শারীরিক দূরত্ব মেনে চলুন ৷ বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে ৷ সচেতনতার বার্তা দিতে সকলে এগিয়ে আসুন ৷ করোনা পরিস্থিতি ভাল করতে হবে ৷ ভারতে ১০ লক্ষে সাড়ে ৫ হাজার করোনা আক্রান্ত ৷ ভারতে করোনায় ১০ লক্ষে ৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে ৷ ইউরোপ-সহ অন্যান্য মহাদেশের দেশগুলির তুলনায় যা কম ৷ আমেরিকা,ব্রাজিলের থেকে ভারতের পরিস্থিতি ভাল ৷ করোনা আক্রান্তদের জন্য ৯০ লক্ষ বেড ৷ দেশে ১২ হাজার কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ব্যবস্থা ৷ করোনা পরীক্ষায় ২ হাজার ল্যাব তৈরি করা হয়েছে ৷ করোনার বিরুদ্ধে এখনও পুরোপুরি সাফল্য মেলেনি ৷ বিজ্ঞানীরা ভ্যাকসিনের জন্য লড়াই করছেন ৷ কোভিড টিকা তৈরির কাজে পুরোদমে চলছে। ভ্যাকসিন এলেই তা দেশের সব মানুষের কাছে কীভাবে পৌঁছে দেওয়া হবে, তার পরিকল্পনা জারি রয়েছে সরকারের ৷ দেশবাসীকে উৎসবের অনেক শুভেচ্ছা ৷ ’’

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: