করোনার থাবা ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও! খাঁ খাঁ করছে হরিনাম কীর্তনের মঞ্চ

করোনার থাবা ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও! খাঁ খাঁ করছে হরিনাম কীর্তনের মঞ্চ
  • Share this:

Partha Sarkar

#জলপাইগুড়ি: করোনার প্রভাব ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও! কেনই বা হবে না! কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের নির্দেশ জনসমাগম এড়িয়ে চলুন। আর তাই রাজ্যে সরকারী, বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। আদালতও ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। মল থেকে বিনোদন পার্ক সর্বত্রই ফাঁকা। করোনা মোকাবিলায় সর্বত্রই কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এবার এসে পড়েছে ধর্মীয় অনুষ্ঠানেও!

নিউ জলপাইগুড়ির ভক্তিনগরে শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দ মন্দিরে শুরু হয়েছে হরি নাম কীর্তন। এবার এই উৎসব ৫০ বছরে পা দিল। প্রতি বছরই হাজার হাজার ভক্তের সমাগম হয়ে থাকে এখানে। কিন্তু গতকাল থেকে শুরু হওয়া এই কীর্তনে এবারে ভক্তের সমাগম করোনার ধাক্কায় অনেকটাই কমেছে। উপচে পড়া ভিড় নেই বললেই চলে। অথচ উদ্যক্তারা সংক্রমণ ঠেকাতে মন্দিরের চারপাশে ব্লিচিং, চুন ছিটিয়েছে। সতর্কতা হিসেবেই এই ব্যবস্থা। কেননা ধর্মীয় অনুষ্ঠানে সাধারণত ভিড় জমান বয়স্ক পুরুষ ও মহিলারা। তবে আজ দ্বিতীয় দিনেও তেমন ভিড় দেখা যায়নি। কিন্তু কেন?

করোনার প্রভাবেই কি ভিড় কম? উদ্যোক্তারা অবশ্য তা মানতে নারাজ। তাদের দাবী, প্রতি বছরই এখানে ভক্তদের ভিড় উপচে পড়ে। এবারেও পড়বে। করোনা থেকে ভগবান বড়। আর শিলিগুড়িতে তো করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নেই। তাই অযথা আতঙ্ক ছড়িয়ে লাভ নেই। ৫০ বছর ধরে হয়ে আসছে এই নাম সংকীর্তনের পালা। এনজেপি, ভক্তিনগর সহ আশপাশের ভক্তেরা ভিড় জমান এখানে। এবারেও জায়গা দেওয়া যাবে না। এমনটাই দাবী উদ্যোক্তাদের। কিন্তু করোনা কাঁপুনি যে লেগেছে। তা সংকীর্তনের দ্বিতীয় দিনের ভক্ত সমাগমই বলে দিচ্ছে। ইতিমধ্যেই সিনেমা হল, মলে ভিড় অনেকটাই হালকা হয়েছে। সিকিমে একাধীক ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ভক্তদের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

First published: March 15, 2020, 9:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर