পূর্ব বর্ধমানে ফের করোনা আক্রান্তের মৃত্যু! মেমারির পর এবার খন্ডঘোষে

এই নিয়ে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে দু’জনের মৃত্যু হল।

এই নিয়ে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে দু’জনের মৃত্যু হল।

  • Share this:

#বর্ধমান: আবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। এই নিয়ে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে দু’জনের মৃত্যু হল। বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষে মাঝ বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশ মেনে মৃতদেহ সৎকারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জেলাজুড়ে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

গত ৮ জুলাই জেলার মেমারির বাগিলা গ্রামে করোনা আক্রান্ত এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছিল। বয়সজনিত কারণে অসুস্থ ওই ব্যক্তিকে মেমারি গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার পরও তাঁর মৃত্যু হয়। জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানিয়েছেন, করোনা আক্রান্ত হয়ে খন্ডঘোষে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে দু জনের মৃত্যু হল।

জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ব্যক্তি খন্ডঘোষের তাঁতিপাড়ার বাসিন্দা। করোনার উপসর্গ দেখা দেওয়ায় অন্য অনেকের সঙ্গে তাঁর নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সেখানে পজিটিভ রিপোর্ট আসায় আলাদা আলাদা ভাবে ফের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। সেখানেও তাঁর নমুনা করোনা পজিটিভ বলে জানা গিয়েছে। ওই ব্যক্তি বাড়িতেই ছিলেন। প্রবল শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ায় তাঁকে পরিবারের লোকরা স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথেই তাঁর মৃত্যু হয়। টেস্টে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার পরও কেন ওই ব্যক্তিকে দ্রুত করোনা হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে বাড়িতে রাখা হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন এলাকার বাসিন্দারা। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, মৃতের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদের চিহ্নিত করা হচ্ছে।  প্রত্যেককেই কোয়ারেন্টাইনে রেখে তাঁদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: