corona virus btn
corona virus btn
Loading

একদিনে আক্রান্ত পাঁচ জন! উদ্বেগে কাটোয়া শহরের বাসিন্দাদের ঘুম ছুটেছে

একদিনে আক্রান্ত পাঁচ জন! উদ্বেগে কাটোয়া শহরের বাসিন্দাদের ঘুম ছুটেছে

করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন বাসিন্দারা

  • Share this:

#‌বর্ধমান:‌ একদিনে আক্রান্ত পাঁচজন! এই খবরে ঘুম ছুটেছে পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া শহরের বাসিন্দাদের। করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন বাসিন্দারা। এই নিয়ে কাটোয়া শহরে এগারো জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলল। কাটোয়ার সার্কাস ময়দান, আবাসন এলাকা, হরিসভা সহ বেশ কয়েকটি এলাকায় করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। জেলা স্বাস্থ্য দ‌ফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্তদের বেশিরভাগই কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। সেখানেই তাঁদের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য বর্ধমান মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছিল। সেই পরীক্ষাতেই তাঁদের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

আক্রান্তদের প্রত্যেককেই বর্ধমানের কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। এঁদের মধ্যে দুজনের বয়স আশি বছরের বেশি। আক্রান্তদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছিলেন তাঁদের প্রত্যেককে চিহ্নিত করার কাজ চলছে। তাঁদের কোয়ারান্টিনে রেখে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। আক্রান্তদের বাড়ি ও তার আশপাশ এলাকাকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করে সেখানে লকডাউন কড়াকড়ি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে প্রসূতি বিভাগের এক মহিলা ও পুরুষ বিভাগের এক কিশোর সহ পাঁচ জনের করোনা আক্রান্তে খবরে ব্যাপক উদ্বেগ ছড়িয়েছে কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে। প্রত্যেক করোনা আক্রান্তই কোনও না কোনও শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য এসেছিলেন। সে জন্য আতঙ্কিত অন্যান্য রোগী ও তাঁদের আত্মীয়রাও। সংক্রমণের জেরে আপাতত এই মহকুমা হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে নতুন করে রোগী ভর্তি নেওয়া বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ভর্তি থাকা রোগীদেরও স্হানান্তরিত করার কাজ শুরু হয়েছে। কয়েকজনকে আপাতত বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে। বাকিদের বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওই বিভাগ ও তার আশপাশ ভালোভাবে জীবাণু মুক্ত করার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের পুরুষ বিভাগ, প্রসূতি বিভাগ, শিশু বিভাগ–সহ অপারেশন থিয়েটার স্যানিটাইজড করা হবে। চিকিৎসার প্রয়োজনে ডাক্তার নার্স স্বাস্থ্য কর্মীদের অনেকেই আক্রান্তদের সংস্পর্শে এসেছিলেন। তাঁদের তালিকা তৈরির কাজ চলছে। এখন পর্যন্ত একশো উনিশ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাঁদের দেহে করোনার সংক্রমণ রয়েছে কিনা সে ব্যাপারে নিশ্চিত হতে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

Saradindu Ghosh

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: July 13, 2020, 5:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर