একবার সেরে গিয়েও ফের করোনা আক্রান্ত ধনেখালির বৃদ্ধ!‌ আতঙ্ক চরমে

আপাতত ESI হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন আছেন ওই বৃদ্ধ।

আপাতত ESI হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন আছেন ওই বৃদ্ধ।

  • Share this:

    #‌কলকাতা:‌ একবার সেরে গিয়েছিলেন, তারপর ফের করোনা আক্রান্ত হলেন ধনেখালির ভান্ডারহাটির বৃদ্ধ। ৮ জুলাই চার্নক হাসপাতালে ভর্তি হন ওই বৃদ্ধ। সেরিব্রাল অ্যাটাক ও কিডনির সমস্যা নিয়ে ভর্তি করা হয় তাঁকে। প্রথম দু’বার বৃদ্ধের করোনা পরীক্ষায় রিপো‍র্ট পজিটিভ আসে। এরপর তৃতীয়বার করোনা পরীক্ষায় রিপোর্ট নেগেটিভ এলে বৃদ্ধকে ছেড়ে দেয় হাসপাতাল।

    কিন্তু বাড়ি ফিরে আসার কয়েকদিন পর ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই বৃদ্ধ। তখন তাঁকে ভর্তি করা হয় মানিকতলা ESI হাসপাতালে। বৃহস্পতিবার ফের বৃদ্ধের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। স্বাভাবিকভাবে মাথায় হাত পড়ে রোগীর আত্মীয়দের। সুস্থ হওয়ার পরেও ফের কী করে করোনা আক্রান্ত হলেন ওই বৃদ্ধ, সেই কথা ভাবতেই বিভ্রান্ত হয়ে পড়ে পরিবার। প্রাথমিকভাবে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়। প্রথমে ৮ জুলাই চার্নক হাসপাতালে ৬০ বছরের বৃদ্ধকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর করোনা পরীক্ষা করা হয়। এরপর ১০ জুলাই প্রথম করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

    তারপর ১৫ তারিখও করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তারপর ১৯ তারিখ ফের পরীক্ষা করা হলে করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তারপর তাঁকে ছেড়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। চার্নক হাসপাতাল মেডিকো হাসপাতালের মাধ্যমে করোনার পরীক্ষা করে। বাড়িতে গিয়ে আবারও ২৭ জুলাই অসুস্থ বোধ করেন ওই বৃদ্ধ। তখন তাঁকে ফের মানিকতলা ESI হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৮ জুলাই ভারাও করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এবার নাইসেডে করোনার পরীক্ষা করা হয়। গোটা ঘটনায় একেবারে বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছে পরিবার। আপাতত ESI হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন আছেন ওই বৃদ্ধ।

    একজন করোনা আক্রান্তের শরীরে কতদিন অ্যান্টিবডি থাকে?‌ একজন আক্রান্ত কী আবারও করোনা প্রকোপে পড়তে পারেন?‌ সেই নিয়ে এখনও বিস্তর গবেষণা চলছে। কেউ বলছেন তিনমাসের মধ্যেই শরীরে করোনার অ্যান্টিবডি শক্তি হারায়। ফলে ভাইরাস আবার হামলা করতেই পারে। কিন্তু বিজ্ঞানীরা এখনও নিশ্চিত করে বললেনি, একজন আক্রান্ত একাধিকবার করোনার কোপে পড়তে পারেন কি না।

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: