corona virus btn
corona virus btn
Loading

অন ডিমান্ড খাবারের চাহিদা বাড়ছে স্পেশাল ট্রেনে

অন ডিমান্ড খাবারের চাহিদা বাড়ছে স্পেশাল ট্রেনে
Representational Image

টিকিটের দামের সাথে যুক্ত নেই খাবারের দাম। কারণ এই বিশেষ ট্রেনগুলিতে খাবার পরিবেশন হচ্ছে ‘অন ডিমান্ড’। আর সেই খাবারের লড়াইয়ে এবার লড়াই নুডলস বনাম ডাল-চালের।

  • Share this:

#কলকাতা: গত ১২ মে থেকে দেশের ১৫ শহরে চালু হয়েছে এসি স্পেশাল রেল পরিষেবা। আইআরসিটিসি মারফত এই সমস্ত ট্রেনের টিকিট বুকিং করা যাচ্ছে। কিন্তু টিকিটের দামের সাথে যুক্ত নেই খাবারের দাম। কারণ এই ট্রেনে খাবার পরিবেশন হচ্ছে অন ডিমান্ড। আর সেই খাবারের লড়াইয়ে এবার লড়াই নুডলসের সাথে ডাল-চালের।

আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে লোকাল বা মেল, এক্সপ্রেস ট্রেন চলার সম্ভাবনা কম। ইতিমধ্যেই রেল মন্ত্রক নোটিফিকেশন করে জানিয়ে দিয়েছে ৩০ জুন পর্যন্ত বাতিল করা হচ্ছে সমস্ত ট্রেনের টিকিট। রাজধানীর ধাঁচে যে স্পেশাল ট্রেন চলছে তাতেও সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখেই ট্রেন পরিষেবা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে রেল মন্ত্রক। তাই রেলে খাবার টিকিটের সাথে যুক্ত হয়ে দেওয়া বাধ্যতামূলক নয় বলেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তাই অন ডিমান্ড খাবার দেওয়া হচ্ছে।রেল কামরায় যা যা পাওয়া যাবে তার মধ্যে আছে রেল নীড় জলের বোতল। ১৫ টাকা দামেই মিলবে জলের বোতল।

যতখুশি জলের বোতল মিলবে এখানে। মিলবে চা ও কফি। ১০ টাকার বিনিময়ে মিলছে এই দুই পানীয়। এছাড়া কেক, বিস্কুট,চিপস পাওয়া যাচ্ছে। আই আর সি টি সি সূত্রে খবর, এম আর পি যা থাকবে সেই দাম নেওয়া হচ্ছে যাত্রীদের থেকে। সবচেয়ে বেশি চাহিদা তৈরি হয়েছে ব্রেকফাস্টের। রেডি টু ইট মিল সরবরাহ করা হচ্ছে। নুডলস, পোহা,উপমা, ডাল-চাল ও রাজমা-চাল পাওয়া যাচ্ছে প্রাতঃরাশের মেনুতে। তিনদিনের হিসেব বলছে বেশিরভাগ যাত্রী তাদের রাতের খাবার বাড়ি থেকে তৈরি করেই আনছেন।

কিন্তু ব্রেকফাস্টের মেনুতে নুডলস আর চাল-ডাল কিনে নিচ্ছেন। মাত্র ৭০ থেকে ৯০ টাকার মধ্যে যা পাওয়া যাচ্ছে। আইআরসিটিসি'র গ্রুপ জেনারেল ম্যানেজার দেবাশীষ চন্দ্র জানিয়েছেন," অন ডিমান্ড ক্যাটারিংয়ে ভাল চাহিদা আছে আমাদের। বিশেষ করে সকালের দিকে ভাল খাবার বিক্রি হচ্ছে ট্রেনে।" হিসেব বলছে যাত্রা শুরুর দিনে খাবার বিক্রি হয়েছে ২৫০০০ টাকার। বিগত দু’দিনে তা বেড়ে ৩৫ ও ৩৮ হাজার হয়েছে। এটা যদিও হাওড়া-নিউদিল্লি রুটে। পূর্ব দিক থেকে চলা রাঁচি, পাটনা, ডিব্রুগড়, আগরতলা রুটেও ভালো চাহিদা আছে বলে জানাচ্ছে আইআর সিটিসি।

আবীর ঘোষাল

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 15, 2020, 4:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर