পূর্ব বর্ধমান জেলায় বাড়ল কন্টেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা ! আক্রান্ত কারা জেনে নিন

এর আগে খন্ডঘোষের বাদুলিয়া, বর্ধমান শহরের সুভাষপল্লি, মেমারি শহরের সোমেশ্বর তলাকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

এর আগে খন্ডঘোষের বাদুলিয়া, বর্ধমান শহরের সুভাষপল্লি, মেমারি শহরের সোমেশ্বর তলাকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় বাড়ল কন্টেইনমেন্ট  জোনের সংখ্যা। তার সঙ্গেই বেড়েছে উদ্বেগ। করোনা আক্রান্তের হদিশ মেলায় কন্টেইনমেন্ট জোনের তালিকায় ঢুকে পড়ল কেতুগ্রামের রতনপুর। ওই এলাকার এক মহিলা করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তাঁকে চিকিৎসার জন্য দুর্গাপুরের করোনা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। এই এলাকা নিয়ে পূর্ব বর্ধমানেকন্টেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা বেড়ে হল চার। এর আগে খন্ডঘোষের বাদুলিয়া, বর্ধমান শহরের সুভাষপল্লি, মেমারি শহরের সোমেশ্বর তলাকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমান জেলার সাত জন বাসিন্দা  করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।  খন্ডঘোষের বাদুলিয়ায় আক্রান্ত দুজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। খণ্ডঘোষের গোপীনাথপুরের এক বাসিন্দা কলকাতা পুলিশে কর্মরত। তিনি কলকাতা পুলিশের গাড়ি চালান। তিনি কলকাতাতে করোনা আক্রান্ত হন। সেখানে এখন তাঁর চিকিৎসা চলছে। করোনা পজিটিভ রিপোর্ট মেলার আগে তিনি বাড়ি এসেছিলেন। সেজন্য তাঁর পরিবারের সদস্যদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বর্ধমানের সুভাষপল্লী এলাকায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এক নার্স। তিনি কলকাতার হাসপাতালে কর্মরত ছিলেন। বর্ধমানে বাড়ি ফেরার পর তিনি করোনা আক্রান্ত হন। তিনিও দুর্গাপুরের সনকা  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। মেমারির  সোমেশ্বর তলায় এক যুবক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি কলকাতার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানে তিনি করোনা আক্রান্ত হন। সেখানে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। বাড়ি ফেরার পর তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। তাকেও দুর্গাপুর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মেমারির পাহাড়হাটির এক মহিলা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমানে কলকাতার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বর্ধমানে তাঁর দুবার পরীক্ষা করা হয়েছিল। দু’বারই তাঁর নেগেটিভ রিপোর্ট এসেছিল। তিনি এখন কলকাতার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।সেখানেই তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট মিলেছে।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: