corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাস্তায় পায়ে পায়ে ঘুরছে করোনা রোগীর ব্যবহৃত সামগ্রী! সংক্রমণ ছড়ানোর প্রবল সম্ভাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে

রাস্তায় পায়ে পায়ে ঘুরছে করোনা রোগীর ব্যবহৃত সামগ্রী! সংক্রমণ ছড়ানোর প্রবল সম্ভাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে

মর্গের বাইরে দেহ ঢেকে রাখার কালো প্লাস্টিক কভার পড়ে রয়েছে রাস্তায়। পিপিই কিট থেকে আরম্ভ করে গ্লাভস খোলাখুলি পড়ে রয়েছে খোলা জায়গায়

  • Share this:

#কলকাতা:  স্বাস্থ্য দফতরের সতর্ক বাণী ,সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য।কারণ সংক্রমণ যাতে কোনো ভাবে না ছড়ায়।করোনা সংক্রমণ যে ভাবে বাড়ছে,সেখানে একেবারে উদাসীন হাসপাতাল গুলো।সেখানে দেখা যাচ্ছে,কোনও ভাবে কোনও নিয়ম মানছে না হাসপাতালের কর্মীরা।

মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গ প্রতিনিয়ত স্যানিটাইজ হয় না বলে অভিযোগ। মর্গের বাইরে দেহ ঢেকে রাখার কালো প্লাস্টিক কভার পড়ে রয়েছে রাস্তায়। পিপিই কিট থেকে আরম্ভ করে গ্লাভস খোলাখুলি পড়ে রয়েছে খোলা জায়গায়।যে সমস্ত ট্রলিতে করে মৃত দেহ আনা হয়, সেই সব ট্রলি খোলা রাস্তায় পড়ে রয়েছে ।তার পাশ দিয়ে রোগীর আত্মীয় পরিজনেরা যাতায়াত করছে প্রতিনিয়ত।  ওখান থেকে মাত্র কয়েক ফুট দূরে লন্ড্রি, হাসপাতালে রোগীদের ব্যবহৃত কাপড়ের স্তুপ রয়েছে ওখানে। বেড কভার, বালিশের কভার, থেকে আরম্ভ করে সমস্ত কিছু খোলা রাস্তার ওপর। লাল যে পুঁটলি গুলো পড়ে রয়েছে ,সেগুলো প্রত্যেকটি করোনা রোগীদের ব্যবহৃত।এগুলো ভয়ংকর ভাবে খোলা রাস্তার ওপর পড়ে রয়েছে লন্ড্রির বাইরে।

মর্গ এবং লন্ড্রির এই সমস্ত কিছু কতটুকু সুরক্ষিত? সেটা নিয়ে প্রশ্ন করছে রোগীর বাড়ির লোকেরা।   করোনা রোগীদের ব্যবহৃত বালিশ,পি পি ই কীট খাবারের ডিব্বা বা পরিতক্ত সমস্ত কিছু হাসপাতাল থেকে ট্রলিতে করে, লাল প্যাকেটের মধ্যে ভরে, বাইরে খোলা রাস্তা দিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।সেগুলো কর্পোরেশনের ভ্যাটে ফেলেছে।   এই ভাবে নিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে,রোগীর আত্মীয় দের মধ্যে,আতঙ্কের ছায়া দেখা গিয়েছে।

এমনকি কর্পোরেশনের ঠিকা কর্মী ভোলা দাস বলেন, ' এই ভাবে করোনা রোগীদের বর্জ ও ব্যবহৃত জিনিসের মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়াতে পারে।তার জন্য তারা হাসপাতালের সুপারকে জানিয়েছেন।হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এখনও কোনও পদক্ষেপ নেননি।'   এই বিষয় নিয়ে মেডিক্যাল হাসপাতালের সুপার ডাঃ নীলাঞ্জন বিশ্বাসের সঙ্গে দেখা করলে,তিনি জানান - ঘটনার সম্পূর্ণ খোঁজ নিয়ে, যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন।   তবে যে ভাবে দিনের পর দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে,তাতে কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে সবাইয়ের।

Shanku Santra

Published by: Elina Datta
First published: August 19, 2020, 12:49 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर