corona virus btn
corona virus btn
Loading

আশার আলো! করোনা সংক্রমণের হার অনেকটাই কম, প্রি-কোভিড হাসপাতাল হচ্ছে না কাটোয়া-কালনায়

আশার আলো! করোনা সংক্রমণের হার অনেকটাই কম, প্রি-কোভিড হাসপাতাল হচ্ছে না কাটোয়া-কালনায়
ফাইল ছবি

পূর্ব বর্ধমান জেলায় কালনা ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে প্রি-কোভিড হাসপাতাল হচ্ছে না ।

  • Share this:

#কাটোয়া: পূর্ব বর্ধমান জেলায় কালনা ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে প্রি-কোভিড হাসপাতাল হচ্ছে না । ওই দুই হাসপাতালে প্রি-কোভিড হাসপাতাল গড়ার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন । শেষ মুহূর্তে সেই সিদ্ধান্ত আপাতত স্থগিত রাখা হল বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে । ইতিমধ্যেই ওই দুই হাসপাতালের পরিকাঠামো খতিয়ে দেখেছিল জেলা স্বাস্থ্য দফতরের প্রতিনিধি দল । কালনা মহকুমা হাসপাতলে ১০০ শয্যার প্রি-কোভিড হাসপাতাল ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতাল কুড়ি বেডের প্রি-কোভিড হাসপাতাল  তৈরি করা হবে বলে আগে জানিয়েছিল জেলা স্বাস্থ্য দফতর ।

পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী জানান, কালনা ও কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালে এখনই প্রি-কোভিড  হাসপাতাল হচ্ছে না । তবে বর্ধমান শহর লাগোয়া দু-নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে বামচাঁদাইপুরে বেসরকারি  ক্যামরি হাসপাতালকে কোভিড হাসপাতাল হিসেবে তৈরি করা হয়েছে । ওই হাসপাতাল এতোদিন প্রি-কোভিড হাসপাতাল হিসেবে কাজ করছিল । এবার থেকে আর করোনা আক্রান্তদের দুর্গাপুরের বেসরকারি সনকা হাসপাতালে পাঠানো হবে না । বর্ধমানের এই করোনা হাসপাতালেই রোগীদের চিকিৎসা চালানো হবে ।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, জেলায় প্রতিদিনই সাড়ে তিনশোর কাছাকাছি পুরুষ-মহিলার নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে । বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে এখনও পর্যন্ত চারশো স্যাম্পেল পরীক্ষার পরিকাঠামো রয়েছে । এখন পর্যন্ত কোনও পরীক্ষা বকেয়া নেই । দিনের দিন সব পরীক্ষা করা হচ্ছে । তবে আগের তুলনায় এখন আক্রান্তের সংখ্যা এই জেলার ক্ষেত্রে অনেকটাই কম । দু-একজন করে আক্রান্তের হদিস মিলছে । তাই আপাতত যে পরিকাঠামো রয়েছে তা আক্রান্তদের চিকিৎসার পক্ষে যথেষ্ট । সে কথা মাথায় রেখেই আপাতত কাটোয়া ও কালনা মহকুমা হাসপাতালে প্রি-কোভিড হাসপাতাল করার পরিকল্পনা স্থগিত রাখা হয়েছে । তার বদলে বর্ধমান মেডিক্যাল  কলেজ হাসপাতালে সব রকম পরিকাঠামো যুক্ত করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ড রাখা হচ্ছে । সংক্রমণ ছড়ালে অর্থাৎ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলে পরবর্তী সময়ে পরিস্থিতি বিচার করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে ।

Saradindu Ghosh

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 18, 2020, 7:05 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर