corona virus btn
corona virus btn
Loading

'নো মাস্ক, নো পেট্রোল', করোনা সতর্কতায় শহরের পেট্রল পাম্প কর্তৃপক্ষের অভিনব উদ্যোগ

'নো মাস্ক, নো পেট্রোল', করোনা সতর্কতায় শহরের পেট্রল পাম্প কর্তৃপক্ষের অভিনব উদ্যোগ

পেট্রোল পাম্পের উদ্যোগে অভিভূত শহরবাসী। যেখানে এখনও অনেক জায়গাতেই সরকারী নির্দেশিকা মানা হচ্ছে না, সামাজিক দূরত্বের বালাই নেই, সেখানে নতুন দিশা দেখাল পেট্রোল পাম্প।

  • Share this:

#শিলিগুড়িঃ নো মাস্ক। নো পেট্রোল। এই পোস্টার পড়েছে শিলিগুড়ির বেশ কিছু পেট্রোল পাম্পে। করোনা সতর্কতা হিসেবে এই ব্যবস্থা নিয়েছে এক পেট্রোল পাম্প মালিক সংগঠন। শিলিগুড়ি জংশনের পেট্রোল পাম্পে শুরু হয়েছে স্যানিটাইজেশন। পেট্রোল এবং ডিজেলের প্রতিটি মেশিন যেমন স্যানিটাইজ করা হচ্ছে রুটিন মত। তেমনই পেট্রোল বা ডিজেল ভরাতে এলে আগে গাড়ি স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। তারপর পেট্রোল ঢালা হচ্ছে গাড়িতে। চারচাকার গাড়ির পাশাপাশি মোটর বাইকও স্যানিটাইজ করছে পাম্প কর্তৃপক্ষ।

পেট্রোল পাম্পের এক কর্তা সুজিত বোস বলেন, করোনা সতর্কতা হিসেবে এই পরিষেবা চালু করা হয়েছে। তিনি জানান, লাগাতার এই প্রক্রিয়া চলবে। মারণ করোনার বিরুদ্ধে জিততে হলে স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশিকা মেনেই চলতে হবে।  পেট্রোল পাম্পেও তাই সেই সতর্কতাই নেওয়া হয়েছে। শিলিগুড়ি জংশনের এই পেট্রোল পাম্পের উদ্যোগে অভিভূত শহরবাসী। যেখানে এখনও অনেক জায়গাতেই সরকারী নির্দেশিকা মানা হচ্ছে না, সামাজিক দূরত্বের বালাই নেই, সেখানে নতুন দিশা দেখাল পেট্রোল পাম্প। এমনকী সোশ্যাল ডিস্টেন্সিংয়ের জন্য গণ্ডিও কাটা হয়েছে। নিয়ম ভাঙলেই পেট্রোল বা ডিজেল দেওয়া হচ্ছে না। পাম্প কর্মীরাও সতর্কতা অবলম্বন করে কাজ করছে। হ্যাণ্ড গ্লাভস, মাস্ক পড়ে কাজ চালিয়ে আসছে পাম্প কর্মীরা। সেইসঙ্গে ঘন ঘন হ্যাণ্ড স্যানিটাইজারও ব্যবহার করছে।

স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশিকা মেনেই কাজ চলছে পেট্রোল পাম্পে। আজ এই পেট্রোল পাম্প মালিকের উদ্যোগে লকডাউনের জেরে সংকটে থাকা দুঃস্থদের হাতেই ত্রান সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। পাম্প কর্মী থেকে সিভিক ভলান্টিয়ার সকলের হাতেই তুলে দেওয়া হয় চাল, ডাক, আটা, তেল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস সামগ্রী। পাশাপাশি আশপাশের গরিব, অসহায় পরিবারের লোকেদের হাতেও সাধ্যমত রেশন সামগ্রীর প্যাকেট তুলে দেওয়া হয়। আগামীদিনেও ত্রান সামগ্রী বিলি করার ভাবনা রয়েছে। কেন না লকডাউনের মেয়াদ যে বাড়তে চলেছে তা একপ্রকার নিশ্চিত।

Partha Sarkar

First published: April 30, 2020, 9:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर