corona virus btn
corona virus btn
Loading

এক দেশ, এক বাজার! দাম পেলে অন্য রাজ্যেও ফসল বেচবেন কৃষক, ঘোষণা অর্থমন্ত্রীর

এক দেশ, এক বাজার! দাম পেলে অন্য রাজ্যেও ফসল বেচবেন কৃষক, ঘোষণা অর্থমন্ত্রীর
নির্মলা সীতারমন৷ PHOTO- ANI

একই সঙ্গে এ দিন কৃষিজ পণ্য পরিবহণ এবং বিক্রি সংক্রান্ত আইনেও পরিবর্তন আনার কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কৃষকদের সুবিধার্থে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণার পাশাপাশি তিনটি বড়সড় সংস্কারের পথে হাঁটল কেন্দ্রীয় সরকার৷ কৃষকরা যাতে উৎপাদিত ফসলের সঠিক দাম পান, মূলত সেই লক্ষ্যকে মাথায় রেখেই এই সংস্কারগুলির পথে হাঁটছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ এর মধ্যে যেমন অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনে বদল আনার ভাবনা রয়েছে, সেরকমই কৃষিজ পণ্য পরিবহণ আইনে বদল আনার ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন৷ এর ফলে গোটা দেশেই উৎপাদিত ফসল বিক্রি করতে পারবেন কৃষকরা৷ পাশাপাশি ফসল চাষের আগেই যাতে কৃষককে ন্যূনতম দাম ফেরত দেওয়ার নিশ্চয়তা দেওয়া যায়, সেই পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷

এ দিন কৃষি ক্ষেত্রের জন্য ১ লক্ষ কোটি টাকার বিশেষ তহবিলের ঘোষণা করেন অর্থমন্ত্রী৷ এই তহবিলের অর্থ খরচ করে মূলত কৃষিজ পণ্য সংরক্ষণের পরিকাঠামো এবং বিদেশে রফতানির সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা হবে৷ পাশাপাশি ক্ষুদ্র খাদ্য পণ্য উৎপাদন শিল্পের জন্যও দশ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজের ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী৷ মৎস্যজাত দ্রব্য, পশুপালনের জন্য বিশেষ তহবিলর ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী৷ মৌমাছি পালন ক্ষেত্রের জন্য ৫০০ কোটির তহবিল ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী৷

এর পাশাপাশি তিনটি প্রশাসনিক এবং আইনি সংস্কারের কথা ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী৷ প্রথমত অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইন সংস্কার করার কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷ অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইন সংস্কার করে খাদ্যশস্য, ভোজ্য বীজ, তৈল বীজ, ডাল, পেঁয়াজ এবং আলুকে এই আইনের নিয়ন্ত্রণাধীন রাখা হবে না৷ এর ফলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়বে এবং কৃষকদের ফসলের আরও ভাল মূল্য পেতে সাহায্য করবে বলেও দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷ জাতীয় বিপর্যয়ের মতো ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে অবশ্য এই পণ্যগুলিকে অত্যাবশ্যকীয় বলেই ঘোষণা করতে পারবে সরকার৷

একই সঙ্গে এ দিন কৃষিজ পণ্য পরিবহণ এবং বিক্রি সংক্রান্ত আইনেও পরিবর্তন আনার কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷ এর ফলে এক রাজ্যের কৃষক ফসলের ভাল দাম পেলে তা অন্য রাজ্যেও বিক্রি করতে পারবেন৷ কৃষকরা যাতে ই ট্রেডিং-এর সাহায্যেও ফসল বেচতে পারেন, তার উপরও জোর দেওয়ার কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী৷

পাশাপাশি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, কৃষকরা চাষ শুরুর সময়ই যাতে তাঁদের ফসলের ন্যূনতম দামের গ্যারান্টি দেওয়া যায়, সেই সুযোগ করে দিতে আইন আনার কথা ভাবছে কেন্দ্র৷ এর ফলে বড় খুচরো বিক্রেতা, অ্যাগ্রিগেটর, রফতানিকারী, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ সংস্থাগুলির সঙ্গে কৃষকদের সরাসরি যোগাযোগ হবে৷ কৃষিজ ক্ষেত্রে বেসরকারি বিনিয়োগে যাবতীয় আইনি বাধা দূর করা হবে৷ চাষের ঝুঁকি কমিয়ে ন্যূনতম মূল্য নিশ্চিত করাই এর মূল উদ্দেশ্য হবে৷ এর ফলে কৃষককে চাষ সংক্রান্ত অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করার পাশাপাশি ফসলের ন্যূনতম দামেরও নিশ্চয়তা দেবে বেসরকারি ক্ষেত্রের বিনিয়োগকারীরা৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: May 15, 2020, 6:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर