Covid19SecondWave: জোরালো ধাক্কা করোনার, দ্রুতগতিতে বাড়ানো হচ্ছে কলকাতায় সেফ হোম

Covid19SecondWave: জোরালো ধাক্কা করোনার, দ্রুতগতিতে বাড়ানো হচ্ছে কলকাতায় সেফ হোম

করোনা মোকাবিলার জন্য শহরে উত্তীর্ণ সহ আরো কয়েক জায়গায় মোট ৭০০ বেডের সেফ হোম তৈরি করছে সরকার।

করোনা মোকাবিলার জন্য শহরে উত্তীর্ণ সহ আরো কয়েক জায়গায় মোট ৭০০ বেডের সেফ হোম তৈরি করছে সরকার।

  • Share this:

#কলকাতা:    করোনার সংক্রমণ প্রতিদিন এ রাজ্যে হাজারের ওপর বাড়ছে। ইতিমধ্যেই করোনা সংক্রমনের সংখ্যা দু‘ হাজারের বেশি। কলকাতার মত ঘিঞ্জি শহরে প্রতিদিন সংক্রমণের সংখ্যা, যেভাবে বাড়ছে। তাতে উদ্বিগ্ন প্রশাসন। সোমবার বেলা বারোটার সময় উত্তীর্ণে ফিরহাদ হাকিম, কলকাতা কর্পোরেশনের কমিশনার ও স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে মিটিং করেন। ফিরহাদ হাকিমের বক্তব্য, নির্বাচন চলার জন্য কলকাতা শহরে তার কর্পোরেশনের পদ না থাকলেও, তিনি মন্ত্রী হিসেবে কলকাতার শহরবাসীকে বাঁচানোর তাগিদে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন কর্পোরেশনের আধিকারিকদের।

সোমবারই থেকেই জোরকদমে উত্তীর্ণকে সেফ হোম বানানোর কাজ শুরু হয়েছে। উত্তীর্ণের সম্পূর্ণ জায়গাটি ঘুরে দেখেন তিনি। আধিকারিকদের নির্দেশ দেন ৫০০ বেডের সেফ হোম বানানো হবে উত্তীর্ণকে। ইতিমধ্যেই কিশোর ভারতীকে  ৫০০ বেডের সেফ হোম বানানো হয়েছে। আধিকারিকদের তিনি আরও বলেন, কলকাতা শহরে সেফ হোম ও কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করার জন্য জায়গা খুঁজতে।  বাড়িতে যাদের উপসর্গ থাকবে, তাদের সঙ্গে কর্পোরেশন প্রতি মুহূর্ত যোগাযোগ রাখবে। তাদের বাড়িতে থাকার মতো উপযুক্ত জায়গা যদি না থাকে! তাহলে এই উত্তীর্ণতে যে গাড়ি থাকবে, সেই গাড়ি তাদেরকে উত্তীর্ণ কিংবা এইরকম সেফ হোমে নিয়ে গিয়ে রাখবে। তিনি আরও বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স এবং ভেন্টিলেটার সহ অ্যাম্বুলেন্স এর ব্যবস্থা করতে বলেন।

  সঙ্গে তিনি এও বলেন, শহরে ভেন্টিলেশনের অনেক অভাব রয়েছে। সেগুলো যদি কোনভাবে ব্যবস্থা করা যায়, তার দিকেও নজর রাখতে বলেছেন সবাইকে। তিনি উল্লেখ করেন, তার নির্বাচনের যে সমস্ত প্রচার এখনো বাকি রয়েছে। সেগুলো এই সংক্রমণ এড়াতে কমিয়ে দেবেন। ফিরহাদ হাকিম সমস্ত দিক দিয়ে শহরবাসীর সঙ্গে যোগাযোগ রেখে করণা মোকাবিলার জন্য দাওয়াই দেন কর্পোরেশনের কর্তাদের। গত বছর করোনা মোকাবিলায় যেটুকু খামতি ছিল, সেই খামতি কোন ভাবে রাখতে চাইছে না রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। তবে হাসপাতালে শয্যার অভাব যে পড়ছে, সেটা এখন থেকে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

SHANKU SANTRA

Published by:Debalina Datta
First published: