PM Modi on Coronavirus: দেশবাসীর যন্ত্রণা তিনিও অনুভব করছেন, করোনাকে 'অদৃশ্য শত্রু' বললেন মোদি

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ Phiti-ANI

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে কেন্দ্রীয় সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ বলে অভিযোগ উঠছে৷ প্রধানমন্ত্রীর ইস্তফার দাবিও উঠেছে৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা অদৃশ্য শত্রু৷ আর এই শত্রুর আক্রমণে দেশবাসী যে যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, তিনি তা অনুভব করতে পারছেন৷ এ দিন এমনই দাবি করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷

    করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে কেন্দ্রীয় সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ বলে অভিযোগ উঠছে৷ প্রধানমন্ত্রীর ইস্তফার দাবিও উঠেছে৷ কিসান সম্মান নিধির অর্থ প্রদান অনুষ্ঠানে এ দিন দেশবাসীর উদ্দেশে এ দিন প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'করোনার কারণে আমাদের প্রিয় বহু মানুষকে হারাতে হচ্ছে৷ দেশবাসী যে যন্ত্রণা ভোগ করলেন, যে অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে তাঁদের যেতে হচ্ছে, আমি তা সমানভাবে অনুভব করতে পারছি৷' একই সঙ্গে মোদি বলেন, 'আপনাদের প্রধান সেবক হিসেবে আপনাদের মনের অবস্থা আমি বুঝতে পারছি৷'

    করোনা ভাইরাসকে অদৃশ্য শত্রু হিসেবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'গত একশো বছরে এটিই সবথেকে ভয়ঙ্করতম অতিমারি৷ প্রতিটি পদক্ষেপে তা গোটা বিশ্বের পরীক্ষা নিচ্ছে৷ আমাদের সামনে এক অদৃশ্য শত্রু উপস্থিত হয়েছে৷ আমাদের সামনে যে বাধাগুলি রয়েছে, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় সেগুলি কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করা হচ্ছে৷' প্রধানমন্ত্রীর দাবি, তাঁর সরকারের একটাই উদ্দেশ্য যাতে আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে টিকা দেওয়া যায়৷

    এ দিনও প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছেন, গোটা দেশে ১৮ কোটি মানুষ ইতিমধ্যে করোনার টিকা পেয়েছেন৷ তিনি বলেন, 'গোটা দেশেই সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে৷ নিজেদের পালা এলে অবশ্যই ভ্যাকসিন নিন৷' প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিনই লড়াইয়ের মূল অস্ত্র৷ টিকা নেওয়া থাকলে সংক্রমণ গুরুতর ক্ষতি করতে পারবে না বলেও আশ্বস্ত করেন প্রধানমন্ত্রী৷ একই সঙ্গে টিকা নেওয়ার পরেও মানুষ যাতে সমস্ত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলেন, সেই অনুরোধও করেছেন মোদি৷

    দিল্লি, মুম্বাইয়ের মতো বড় শহরগুলিতে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে৷ তবে দেশের গ্রামাঞ্চল এবং দক্ষিণ ভারতে পরিস্থিতি এখনও উদ্বেগজনক৷ এই প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'গ্রামাঞ্চলের মানুষকে বলব, করোনা সংক্রমণ গ্রাম্য এলাকাগুলিতে উদ্বেগজনক ভাবে বাড়ছে৷ এই সময় গ্রাম পঞ্চায়েতগুলির ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: