এই শহরে টোটোয় দু’‌জনের বেশি যাত্রী তোলায় নিষেধাজ্ঞা!‌ কড়া জেলা প্রশাসন

এই শহরে টোটোয় দু’‌জনের বেশি যাত্রী তোলায় নিষেধাজ্ঞা!‌ কড়া জেলা প্রশাসন
একইভাবে ফেরি চলাচল ক্ষেত্রেও যাত্রীদের মুখে মাস্ক থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ফেরিঘাটে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

একইভাবে ফেরি চলাচল ক্ষেত্রেও যাত্রীদের মুখে মাস্ক থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ফেরিঘাটে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

  • Share this:

#‌পূর্ব বর্ধমান: ‌করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে টোটোয় যাত্রী তোলার ক্ষেত্রে কড়া বিধিনিষেধ জারি করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। টোটোয় দুজনের বেশি যাত্রী তোলা যাবে না বলে নির্দেশিকা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। সেই নির্দেশে বলা হয়েছে, চালক ছাড়া টোটোয় দু’‌জনের বেশি যাত্রী তোলা যাবে না। বেশি যাত্রী তোলার জন্য যাত্রীরাও টোটো চালককে জোর করতে পারবেন না। এছাড়া টোটো চালক ও যাত্রী উভয়ের মুখেই মাস্ক থাকা বাধ্যতামূলক।

বর্ধমান শহর–সহ জেলাজুড়েই ই রিকশায় যাত্রী তোলার ব্যাপারে আগে থেকেই বিধিনিষেধ জারি থাকলেও তা মানা হচ্ছিল না বলে অভিযোগ উঠছিল। নিষেধাজ্ঞাকে কোনওরকম পাত্তা না দিয়েই একটি টোটোয় চারজন এমনকি পাঁচজন যাত্রীও তোলা হচ্ছিল। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সচেতনতা ভুলে গা ঘেঁষাঘেঁষি করে ই–রিকশায় বসে যাতায়াত করছিলেন বাসিন্দারা। করোনা সংক্রমণ উত্তরোত্তর বাড়তে থাকায় সেই টোটো চলাচলকে বিধি-নিষেধের আওতায় আনতে এবার তৎপর হল জেলা প্রশাসন। প্রশাসন জানিয়েছে, নির্দেশ মেনে ই–রিকশায় যাত্রী তোলা নিশ্চিত করতে পুলিশকে নজরদারি বাড়াতে বলা হয়েছে। দু’‌জনের বেশি যাত্রী তুললেই সেই ই–রিকশার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যাত্রী ও চালক যাতে মাস্ক স্যানিটাইজার ব্যবহার করেন তাও নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।

একইভাবে ফেরি চলাচল ক্ষেত্রেও যাত্রীদের মুখে মাস্ক থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ফেরিঘাটে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের পরই যাত্রীরা নৌকায় উঠতে পারবেন। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বাসে যা সিট তার বাইরে একজন অতিরিক্ত যাত্রীও তোলা যাবে না। নির্দেশ অমান্য করে বাসে ভিড়ে ঠাসাঠাসি করে যাত্রী তোলা হচ্ছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। অনেক বাসে আবার ছাদেও যাত্রী পরিবহণ শুরু হয়েছিল। সেসব গোচরে আসতেই বাসে যাত্রী তোলার ক্ষেত্রে পুনরায় নির্দেশ জারি করেছে জেলা প্রশাসন।


Saradindu Ghosh

Published by:Uddalak Bhattacharya
First published: