corona virus btn
corona virus btn
Loading

আগামিকাল থেকে রাস্তায় চলবে অধিক সরকারি বাস 

আগামিকাল থেকে রাস্তায় চলবে অধিক সরকারি বাস 
কেন্দ্র জানিয়েছে রাজ্যগুলি নিজেদের মধ্যে কথা বলে আন্তঃরাজ্য বাস চলাচলে অনুমতি দিতে পারে ৷ একইভাবে পারস্পরিক বোঝাপড়ায় চলতে পারে গাড়িও ৷ কনন্টেইনমেন্ট জোন ছাড়া গাইডলাইন মেনে রাজ্যের ভিতর গণপরিবহন ও বাস গাড়ি চলাচলে বাধা নেই ৷ কিন্তু এক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের ৷ পশ্চিমবঙ্গে সোমবার থেকে রাস্তায় নামছে পর্যাপ্ত সরকারি বাস, অ্যাপ ক্যাব-ট্যাক্সি Photo Courtesy: PTI

সোমবার সকাল থেকে রাস্তায় মিলবে আধ ঘণ্টা অন্তর সরকারি বাস।

  • Share this:

#কলকাতা: সপ্তাহের প্রথম কাজের দিন থেকেই রাস্তায় নামছে অধিক সরকারি বাস। মিলবে না বেসরকারি বাস। বাস নামাতে চেয়ে সরকারের সাথে আলোচনায় বসার জন্য প্রস্তুত বাস মালিক সংগঠনগুলি। বেসরকারি বাসের ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত মানতে নারাজ সরকার। যে সংখ্যক মানুষ রাস্তায় গণপরিবহণ ব্যবস্থার সাহায্য নেবেন তাদের সুবিধার জন্য বাড়িয়ে দেওয়া হল সরকারি বাস।

সোমবার সকাল থেকে রাস্তায় মিলবে আধ ঘণ্টা অন্তর সরকারি বাস। যে সমস্ত রুটে এখন সরকারি বাস চলছে সেই সমস্ত রুটে বাসের সংখ্যা বাড়ছে। চাহিদা অনুযায়ী বৃদ্ধি করা হতে পারে আরও বাস। তাই আপাতত বেসরকারি বাসের ভাড়া বাড়িয়ে রাস্তায় নামার সিদ্ধান্ত মেনে নিচ্ছে না সরকার। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিবহণ নিগম সূত্রে জানানো হয়েছে, বিভিন্ন ডিপোতে বাস স্যানিটাইজ করে প্রস্তুত রয়েছে। ২০ জন যাত্রী নিয়েই বাস দৌড়বে। সামাজিক দুরত্ব মেনেই বাসে যাত্রী তোলা হবে। ডানলপ, হাওড়া'র মতো জায়গায় যাত্রী বেশি থাকায় বেশি সংখ্যক বাসের ব্যবস্থা করা থাকবে।

অন্যদিকে, সোমবার থেকে রাস্তায় নামার কথা ছিল বেসরকারি বাস। কিন্তু ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত মেনে নিতে নারাজ রাজ্য সরকার। রাজ্যের বক্তব্য, বাস মালিকদের প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো এবং কর সংক্রান্ত অন্যান্য ক্ষেত্রে রাজ্য সহযোগিতা করবে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে ভাড়া বৃদ্ধির দাবি তারা মেনে নিতে পারবেনা। রাজ্য মনে করছে ন্যূনতম ভাড়ার তিনগুণ ভাড়া নিয়ে রাস্তায় বাস চলা মানে মানুষের ওপর বাড়তি বোঝা। যে সংখ্যক মানুষ রাস্তায় নেমেছেন, তাদের যাতায়াতের জন্য সরকারি বাস দিয়েই মোকাবিলা করা সম্ভব হবে।

রবিবার বরাহনগরে বৈঠকে বসেন রাজ্য বাস, মিনিবাস ওনারস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা। যদিও এই সংগঠনের প্রতিনিধিরা মুলত মিনিবাস চালান। তাদের দাবি, সোমবার থেকে রাস্তায় বাস নামানোর জন্য তারা প্রস্তুত ছিলেন। কিন্তু সরকার ভাড়া না বাড়ানোয় তাদের অসুবিধার মধ্যে পড়তে হল। ফলে বাস চালক ও কন্ডাক্টরদের ক্ষতির বোঝা বাড়বে।  সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক প্রদীপনারায়ণ বোস জানান, "এমনিতেই আমাদের দশা বেহাল। এর ওপরে ভাড়া না বাড়িয়ে বাস চালানো মানে নিজেদের মৃত্যু ডেকে আনা। আশা করব সরকার আমাদের কথা শুনবে ও বুঝবে।"

আলোচনার মাধ্যমেই এই সমস্যার সমাধান সম্ভব বলে মনে করছেন বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির নেতা রাহুল চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন, "এই যে জটিলতা তৈরি হয়েছে তা থেকে বেরিয়ে আসার একমাত্র উপায় হল ফের সরকারের সাথে আলোচনায় বসা। আলোচনার মাধ্যমেই এই সমাধান হবে। আমাদের অসুবিধা কোথায় আর সরকারের বাধ্যবাধকতা কোথায় তা জানতে হবে।" জয়েন্ট কাউন্সিল অব বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, " সরকার একতরফা ভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেওয়ায় আমরা হতাশ। জেলায় যে সব বাস মালিকরা প্রস্তুত হয়েছিলেন তারাও ভেবে উঠতে পারছেন না এবার তাদের কি করা উচিত।" ফলে সোমবার সকাল থেকে কলকাতার রাস্তায় ভরসা সেই সরকারি বাস। তবে সমস্যা মেটাতে সময়ের ব্যবধান কমিয়ে চলবে বেশি সংখ্যায় সরকারি বাস।

Abir Ghoshal

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 17, 2020, 8:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर