corona virus btn
corona virus btn
Loading

গত ২৪ ঘন্টায় সংক্রমিত ১৫৮ জন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল উত্তরবঙ্গ মেডিকেলের এক চিকিৎসকের

গত ২৪ ঘন্টায় সংক্রমিত ১৫৮ জন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল উত্তরবঙ্গ মেডিকেলের এক চিকিৎসকের

পুরনো সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেল আক্রান্তের গ্রাফ! যে কথাটা প্রথম থেকেই বলে আসছিলেন বিশিষ্ট চিকিৎসক এবং করোনা জয়ী চিকিৎসকেরা।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি:  করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল এক চিকিৎসকের। উত্তরবঙ্গ মেডিকেলের চিকিৎসক। ব্লাড ব্যাঙ্কে কর্মরত ছিলেন। আজই উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হন একটি বেসরকারী হাসপাতালে। রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। এই প্রথম কোনও চিকিৎসকের মৃত্যু হল উত্তরে।

অন্যদিকে পুরনো সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গেল আক্রান্তের গ্রাফ! যে কথাটা প্রথম থেকেই বলে আসছিলেন বিশিষ্ট চিকিৎসক এবং করোনা জয়ী চিকিৎসকেরা। ন্যূনতম সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে। নাক এবং মুখ যেমন মাস্ক বা ফেস কভারে ঢাকতে হবে, তেমনি সোশ্যাল ডিস্টেনশিং অক্ষরে অক্ষরে পালন করতে হবে। তাহলেই এই অতিমারির হাত থেকে রক্ষে পাওয়া সম্ভব। কিন্তু বাস্তবে ঠিক উলটো ছবি। রীতিমতো ছেলেখেলা করছে এক শ্রেণীর মানুষ। আর তার ফল হাতেনাতে আসছে। দিন দিন বেড়েই চলেছে সংক্রমণ। এখনও জেলার সব জায়গায় র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরুই হয়নি। তার আগেই আক্রান্তের গ্রাফ উর্ধমুখী! যা ভাবাচ্ছে স্বাস্থ্য কর্তাদের। কিন্তু যাদের মেনে চলার কথা, তারা বহাল তবিয়তে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

মাস্ক ছাড়া যেমন ঘোরাফেরা চলছে। তেমনি আবার কারো গলায় ঝুলছে, কারো বা থুতনিতে ঠাঁই পেয়েছে মাস্ক! শহরের প্রধান রাস্তাগুলোতে মাঝেমধ্যে পুলিশি ধরপাকড় হলেও, বাজারঘাট, মার্কেট, গ্রামের হাটগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বালাই নেই! আর তাই হু হু করে জাল ছড়াচ্ছে মারণ করোনা। পাহাড় থেকে সমতল সর্বত্রই সংক্রমণ বাড়ছে।

বিকেলের পর থেকে পাড়ায় পাড়ায় শুধু যথেষ্টই ভিড়ই নয়, মাস্ক ছাড়া দেদার চলছে রকবাজি! নিজের ভালো নিজে যদি না বোঝে তাহলে আর কিছু করারই নেই। বলছিলেন এক প্রশাসনিক কর্তা। রাজনৈতিক কর্মসূচীতেও কোনো ছাড় নেই। আন্দোলন, অবস্থান, বিক্ষোভ, ঘেরাও কর্মসূচী চলছে, সামাজিক দূরত্বের বালাই নেই! তাহলে গ্রাফ নামবে কোন উপায়ে? গত ২৪ ঘন্টায় শিলিগুড়ি পুরসভার ৪৭টি ওয়ার্ড এবং দার্জিলিংয়ের পাহাড় ও সমতলের গ্রামীন এলাকা মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ১৫৮ জন! পুরনো সব রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছে। চূড়ান্ত অসাবধানতার ফল! এর মধ্যে পুরসভার ৪৭টি ওয়ার্ডে আক্রান্ত ৮৪ জন! গ্রামের চার ব্লকে নতুন করে ৩৯ জনের লালা রসের রিপোর্ট পজিটিভ এসছে। যার মধ্যে নকশালবাড়িতে ১৭ জন, মাটিগাড়ায় ১৬ জন, খড়িবাড়িতে ৪ জন এবং ফাঁসিদেওয়ায় ২ জন আক্রান্ত।

পাহাড়ে বেড়েই চলেছে গ্রাফ। নতুন করে আক্রান্ত ৩৫ জন! এর মধ্যে সুখিয়াপোখরিতেই আক্রান্ত ১৪ জন। প্রতিদিনই এই এলাকায় বাড়ছে সংক্রমণ। পুলবাজারে ৬ জন, দার্জিলিং পুর এলাকায় ৮ জন, কার্শিয়ংয়ে ৬ জন এবং মিরিকে আক্রান্ত ১ জন। সুস্থতার হার অবশ্য নামেনি। ভালো সংখ্যায় প্রতিদিনই সুস্থ হয়ে উঠছে। এদিন কোভিড জয় করেছেন ৭৪ জন!

Partha Pratim Sarkar

Published by: Elina Datta
First published: September 5, 2020, 1:18 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर