• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • ডাক্তার অ-মিল, সাধারণ অসুস্থতায় মহল্লার ভরসা রাজুর দাবা-খানা

ডাক্তার অ-মিল, সাধারণ অসুস্থতায় মহল্লার ভরসা রাজুর দাবা-খানা

বালিগঞ্জ, বেকবাগান, পাকসার্কাস অঞ্চলের অসহায় মুখদের আশা-ভরসা হয়ে উঠেছেন মহমেডান ক্লাবের-সহ সচিব রাজু আহমেদ।

বালিগঞ্জ, বেকবাগান, পাকসার্কাস অঞ্চলের অসহায় মুখদের আশা-ভরসা হয়ে উঠেছেন মহমেডান ক্লাবের-সহ সচিব রাজু আহমেদ।

বালিগঞ্জ, বেকবাগান, পাকসার্কাস অঞ্চলের অসহায় মুখদের আশা-ভরসা হয়ে উঠেছেন মহমেডান ক্লাবের-সহ সচিব রাজু আহমেদ।

  • Share this:

#কলকাতা: সময়টা সত্তরের দশকের শেষ। বলিউড মাত হয়েছিল হিম‍্যান ধর্মেন্দ্রর সঙ্গে ড্রিমগার্ল হেমার স্ক্রিনের রসায়নে। জনপ্রিয় হয়েছিল রাহুল দেব বর্মনের সুরে, কিশোর কুমারের গলায় গাওয়া, রাজু চল রাজু.. আপনি মাস্তি মে তু...!

ময়দানের রাজুও যেন মনে করিয়ে দিচ্ছে টিনসেল টাউনের সেই গানটাকে। বালিগঞ্জ, বেকবাগান, পাকসার্কাস অঞ্চলের অসহায় মুখদের আশা-ভরসা হয়ে উঠেছেন মহমেডান ক্লাবের-সহ সচিব রাজু আহমেদ।পাড়ায় পাড়ায় ডাক্তার-খানা বন্ধ। চেম্বারে প্রাইভেট মেডিকেল প্রাকটিশনাররা উধাও। নাস্তানাবুদ হওয়ার জোগাড় সাধারণ রোগীদের। সেরিব্রাল, হার্টের রোগীদের পাশে সাধারণ জ্বর, পেটব্যথা নিয়ে ছুটে বেড়ানো মানুষগুলো চিকিৎসকদের খোঁজে হয়রান। অথচ দেখা নেই চিকিৎসকদের।

এই অবস্থায় মধ্য কলকাতার  মসিহা হয়ে দাঁড়িয়েছেন রাজু ইস্তিয়াক আহমেদ। নিজের উদ্যোগে বেকবাগানে খুলে ফেলেছেন স্বাস্থ্যকেন্দ্র। নিজস্ব নেটওয়ার্ক কাজে লাগিয়ে খুঁজে আনছেন চিকিৎসকদের। মহল্লার মানুষগুলোকে চিকিৎসার সুবিধাটুকু পৌঁছে দিতে চেষ্টায় ত্রুটি নেই মানুষটার। প্রশ্ন করলে ইস্তিয়াক বলেছেন, "ডাক্তারদের প্রাইভেট চেম্বার বন্ধ থাকায় অসুবিধায় পড়েছেন সাধারণ মানুষ। হাসপাতালে পৌঁছনো সবার পক্ষে সম্ভব হয় না। তাই চিকিৎসক এনে ক্লিনিক খোলার ব্যবস্থা হয়েছে। জ্বর, পেটব্যথার মত অসুস্থতায় বিনামূল্যে ওষুধ দেওয়া হচ্ছে রোগীদের।"

সপ্তাহের সাত দিন ক্লিনিক খোলা। করোনা কবলিত দিনে সতর্কতা সেখানেও। থার্মাল স্ক্যানিংয়ের শরীরের তাপমাত্রার মাপজোকে পাশ হলে তবেই মিলছে ক্লিনিকের প্রবেশাধিকার। অন্যথায় লোকজন দিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন হাসপাতালে। স্থানীয় বাসিন্দা থেকে ক্লিনিকের ভারপ্রাপ্ত চিকিৎসক। রাজুর উদ্যোগে উচ্ছ্বসিত সবাই।মহমেডান স্পোর্টিংয়র কর্মকর্তা রাজু এখন গোটা মহল্লার ভাইজান। তাদের মনের মানুষ। ঠিক যেন আরডি বর্মনের সুরে কিশোর কুমারের গানের কলির মতোই!

PARADIP GHOSH

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: