• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • Mamata on Vaccine Overprice: '১৬৭ শতাংশ বেশি দামে কেন ভ্যাকসিন কিনবে রাজ্য?' মোদিকে চিঠি দিয়ে প্রশ্ন মমতার

Mamata on Vaccine Overprice: '১৬৭ শতাংশ বেশি দামে কেন ভ্যাকসিন কিনবে রাজ্য?' মোদিকে চিঠি দিয়ে প্রশ্ন মমতার

প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর৷

প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর৷

  • Share this:

    #কলকাতা:  কেন্দ্রের তুলনায় কেন ১৬৭ শতাংশ বেশি দাম দিয়ে করোনার টিকা কিনতে হবে রাজ্যগুলিকে৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়ে এই প্রশ্নই তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ একই সঙ্গে তাঁর অভিযোগ, কেন্দ্র তৃতীয় দফার করোনার টিকাকরণের জন্য যে নীতি তৈরি করেছে তা বিভাজনমূলক এবং জনবিরোধী৷

    আগামী ১ মে থেকে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে প্রত্যেকেই টিকা পাবেন বলে ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ একই সঙ্গে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, রাজ্যগুলি সরাসরি টিকা উৎপাদনকারী সংস্থাগুলির থেকে ভ্যাকসিন কিনতে পারবে৷ কিন্তু কেন্দ্র সরকার যেখানে ১৫০ টাকায় কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের প্রতি ডোজ কিনছে, সেখানে রাজ্য সরকারকে দিতে হবে ডোজ পিছু ৪০০৷ কোভিশিল্ডের উৎপাদনকারী সিরাম ইনস্টিটিউট এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানিয়েছে৷ বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে আবার ভ্যাকসিনের ডোজ পিছু ৬০০ টাকা দিতে হবে৷

    বুধবারই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, টিকার দামে এই বৈষম্যের বিরোধিতায় তিনি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবেন৷ এ দিনই সেই চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেছেন, 'আমার আশঙ্কা, কেন্দ্রীয় সরকারের এই নতুন নীতি খুবই বৈষম্যমূলক এবং জনবিরোধী৷ মানুষের স্বার্থের কথা না ভেবে এ ক্ষেত্রে ব্যবসায়িক দিকটির উপরেই পক্ষপাতিত্ব করা হচ্ছে৷'

    মুখ্যমন্ত্রী আরও অভিযোগ করেছেন, 'কেন্দ্র যেখাবে প্রতি ডোজ ভ্যাকসিন ১৫০ টাকায় পাচ্ছে, সেখানে রাজ্য সরকারকে কেন ৪০০ টাকা করে দিতে হবে? কেন্দ্র নিজের জন্য যে দাম ঠিক করেছে, রাজ্য সরকারকে তার তুলনায় ১৬৭ শতাংশ বেশি দাম দিতে হবে৷ রাজ্যগুলি ভ্যাকসিন কিনবে গরিব এবং তরুণ প্রজন্মকে দেওয়ার জন্য৷ ফলে আপনাদের এই সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর পরিপন্থী এবং গরিব, যুব সমাজের বিরোধী৷ ভারতের ইতিহাসে দামের উপর এই ধরনের অদ্ভুত বৈষম্য নজিরবিহীন৷ এমন কি, আজ পর্যন্ত কখনওই এই ধরনের গণ টিকাকরণ কর্মসূচিতে রাজ্যগুলিকে ভ্যাকসিন কিনতে বলা হয়নি৷ বেশি দামের কথা না হয় ছেড়েই দিলাম৷'

    মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট বলেছেন, দেশ এই মুহূর্তে যে কঠিন পরিস্থিতির মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছে, সেখানে ভ্যাকসিন নির্মাতাদের ব্যবসা করার কোনও প্রশ্নই ওঠে না৷ এই সময় সাধারণ মানুষের স্বার্থেই কোনওরকম ভেদাভেদ না করে সব ধরনের চেষ্টা করা উচিত৷

    এর পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে ৬০০ টাকায় ভ্যাকসিনের ডোজ কিনতে হবে বলে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তারও বিরোধিতা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তার অভিযোগ, এই ব্যবস্থা চালু হলে তা শুধু অস্বাস্থ্যকরই হবে না, বরং ভ্যাকসিনকে কেন্দ্র করে বাজারে অসাধু কার্যকলাপও বাড়বে৷ সবশেষে প্রত্যেক ভারতীয়কে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন, 'কেন্দ্র অথবা রাজ্য, যেই খরচ বহন করুক না কেন, ভ্যাকসিনের দাম যেন একই হয়৷ আমি মনে করি জাতি, ধর্ম, বর্ণ, বয়সের ভেদাভেদ না করে প্রত্যেক ভারতীয় বিনামূল্যে ভ্যাকসিন পাক৷' অবিলম্বে এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: