corona virus btn
corona virus btn
Loading

'আমাকে ডিস্টার্ব করতে গিয়ে বাংলার সর্বনাশ করবেন না', পরিযায়ীদের ফেরানো নিয়ে রাজনীতি দেখছেন মমতা

'আমাকে ডিস্টার্ব করতে গিয়ে বাংলার সর্বনাশ করবেন না', পরিযায়ীদের ফেরানো নিয়ে রাজনীতি দেখছেন মমতা
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

রাজ্যের অবস্থা মুম্বই, দিল্লি, গুজরাতের মতোই করার চেষ্টা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মমতা৷ এর পিছনে রাজনৈতিক অভিসন্ধিই দেখছেন তিনি৷

  • Share this:

#কলকাতা: তাঁকে রাজনৈতিকভাবে কোণঠাসা করতে গিয়ে বাংলার সর্বনাশ করার চেষ্টা হচ্ছে৷ পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানো নিয়ে কেন্দ্র এবং রেলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করতে গিয়ে এ দিন এই মন্তব্যই করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷  বাংলায় করোনা সংক্রমণ বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য রাজনীতি হচ্ছে বলেও এ দিন অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷  ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন, 'দুর্যোগ সামলাব নাকি আপনাদের রাজনীতি?'

এ দিন নবান্নে প্রশাসনিক বৈঠকে আগাগোড়াই কেন্দ্রীয় সরকার এবং রেলের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তাঁর অভিযোগ, রাজ্যের সঙ্গে কোনওরকম আলোচনা না করেই একতরফা ভাবে পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরত পাঠাচ্ছে রেল৷ যার ফলে রাজ্যে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে৷ কারণ ইতিমধ্যেই যে পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরেছেন, তাঁদের অনেকের করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছে৷ তাঁর অভিযোগ, বাংলায় করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণেই ছিল৷ কিন্তু যেভাবে রাজ্যের পরামর্শ উপেক্ষা করেই একসঙ্গে বিপুল সংখ্যক পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে রাজ্যে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ঢুকছে, তাতে পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে৷ রাজ্যের অবস্থা মুম্বই, দিল্লি, গুজরাতের মতোই করার চেষ্টা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মমতা৷ এর পিছনে রাজনৈতিক অভিসন্ধিই দেখছেন তিনি৷

ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'ওরা আমাকে পলিটিক্যালি ডিস্টার্ব করতে গিয়ে বাংলার সর্বনাশ কেন করছে আমি জানি না৷ দুর্যোগ সামলাব, নাকি আপনাদের রাজনীতি সামলাব? আপনারা চান বাংলাটা মহারাষ্ট্র, গুজরাত, দিল্লি হয়ে যাক৷ অন্য রাজ্যে যাঁরা করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন, তাঁদের জন্য আমরা সমবেদনা জানাই৷ অন্য রাজ্যগুলির প্রতি আমাদের সহমর্মিতাও রয়েছে৷ আমরা এই পরিস্থিতিতে রাজনীতি চাই না৷'

মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, মহারাষ্ট্র থেকে একসঙ্গে রাজ্যে প্রায় ৩৬টি ট্রেন পাঠানো হচ্ছে৷ এ বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকার তো বটেই, মহারাষ্ট্র সরকারও কিছু জানেনা বলে অভিযোগ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ক্ষোভের সঙ্গে তিনি বলেন, 'মুম্বই থেকে বের করে দিয়ে এখানে সংক্রমণ বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে৷'

মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্টই বলেন, যে পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরছেন, তাঁরা এ রাজ্যেরই বাসিন্দা৷ তাঁদের ফেরানো নিয়ে রাজ্যের কোনও আপত্তিও নেই৷ কিন্তু যেহেতু রাজ্য প্রশাসন এখন ঘূর্ণিঝড় আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যস্ত, তাই ধাপে ধাপে পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর জন্য রেলকে অনুরোধ করেছিল৷ কিন্তু রেল তা শোনেনি৷ ফলে বিপুল সংখ্যক পরিযায়ী শ্রমিক একসঙ্গে এ রাজ্যে ঢুকলে সংক্রমণ আরও বাড়ার আশঙ্কা করছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এই পরিস্থিতি আটকাতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপও দাবি করেন তিনি৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: May 27, 2020, 9:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर